প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]সুয়েজে জাহাজ আটকানোর পর আবারও শুরু হয়েছে খালটির ইসরায়েলি বিকল্প নিয়ে আলোচনা

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] ইসরায়েল-মিশর সীমান্তে আরেকটি খাল খোড়ার পরিকল্পনা পুর্ণবিবেচনা করছে জাতিসংঘও ।

[৩] ছয় দিন দিনরাত ২৪ ঘণ্টা চেষ্টায় জাপানি মালিকানাধীন এভারগিভেন জাহাজটিকে উদ্ধার করে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জলপথটি চালু করার পর লোকসানের হিসেব-নিকেশ শুরু হয়েছে। যাগকারী ১২০ মাইল দীর্ঘ এই খাল দিয়ে বিশ্ব বাণিজ্যের ১২ শতাংশ পণ্য পরিবহণ হয়। বিবিসি

[৪] বৃহস্পতিবার বিজনেস ইনসাইডারে ১৯৬৩ সালের একটি গোপন মার্কিন সরকারি নথি প্রকাশ করা হয়। যেখানে সুয়েজ খালের বিকল্প হিসাবে ইসরায়েলের ভেতর দিয়ে একটি খাল তৈরির পরিকল্পনার কথা ছিল। যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য দপ্তরের গোপন ওই নথি ১৯৯৬ সালে আংশিকভাবে প্রকাশ করা হয়।

[৫] গোপন পরিকল্পনায় ১৬০ মাইল লম্বা একটি খাল খননের জন্য ইসরায়েলের নেগেভ মরুভূমির তলায় ৫২০টি পারমানবিক বোমা বিস্ফোরণ করার কথা বলা হয়েছিলো। এদিকে, সুয়েজ খালে দুর্ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ইসরায়েল এবং মিশরের সীমান্ত দিয়ে নতুন একটি খাল তৈরির সম্ভাবনা নিয়ে জাতিসংঘের বাণিজ্যিক-রুট সম্পর্কিত কমিটিতে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়েছে। দ্য গার্ডিয়ান

[৬] কয়েক বছর আগে জাতিসংঘ টানেল তৈরিতে বিশেষজ্ঞ একটি কোম্পানিকে দিয়ে সুয়েজের বিকল্প একটি খালের সম্ভাব্যতা যাচাই করেছিল, যেখানে ওই কোম্পানি বলেছিলো, পাঁচ বছরে এমন একটি কৃত্রিম খাল তৈরি করা সম্ভব।

[৭] রাজনৈতিক ঝুঁকি সম্পর্কিত গবেষণা সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারেস্টের প্রধান এবং মধ্যপ্রাচ্য রাজনীতির বিশ্লেষক সামি হামদি বলেন, সুয়েজ খালের নিয়ন্ত্রণ এবং তা সম্ভব না হলে বিকল্প একটি জলপথ তৈরির পরিকল্পনা ইসরায়েল বহুদিন ধরেই করছে। আর তাতে পূর্ণ সমর্থন রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র এবং পশ্চিমা অনেক দেশের।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত