প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সেনাবাহিনীর বিমান হামলার মুখে জঙ্গলে আশ্রয় নিয়েছেন মিয়ানমারের শতশত বাসিন্দা

লিহান লিমা: [২] সোমবার ইয়াঙ্গুনসহ মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলীয় শহর বাগো, মিনহলা, খিন-ইউ, দক্ষিণাঞ্চলীয় মাওলামাইন ও পূর্ব দেমোসে গণতন্ত্রের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে মিয়ানমারের জনতা। আল জাজিরা

[৩] এদিন রোববারে নিহতদের শেষ কার্য সম্পন্ন করেছেন স্বজনরা। তারা কফিনের পেছনে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে সেনাশাসন বিরোধী গান গেয়েছেন। এই গানের মূল লাইনটি হলো ‘এই বিশ্বের সমাধি অবধি তোমাদের ক্ষমা নেই’। সেনাবাহিনীকে দৈত্য বলে মন্তব্য করে তারা বলেন, তোমরা যা করেছো আমরা কখনোই তা ক্ষমা করবো না।

[৪] গত ১ ফেব্রুয়ারির পর থেকে এ নিয়ে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে ৪৬০জন প্রাণ হারিয়েছেন। বিক্ষোভকারীরা মিয়ানমারের বিভিন্ন নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর কাছে তাদের সশস্ত্র অংশের সহযোগিতা চেয়েছে।

[৫] রোববার দেশটির উত্তরের হপাকান্ত এলাকায় কাচিন বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গেও লড়াই হয়েছে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর।

[৬] কারেন সশস্ত্র গোষ্ঠীর নিয়ন্ত্রণে থাকা কয়েকটি গ্রামে শনিবার রাতে বিমান হামলা চালায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। এই হামলায় প্রায় ১০ হাজার মানুষ ঘরছাড়া হয়েছেন। তারা জঙ্গলে আশ্রয় নিয়েছেন। ২০০ শিক্ষার্থীসহ প্রায় ৩ হাজার বাসিন্দা সীমান্ত টপকে থাইল্যান্ডে আশ্রয় গ্রহণ করেছেন বলে জানিয়েছে থাইল্যান্ড কর্তৃপক্ষ। থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান এক বিবৃতিতে বলেন, মানবিক খাতিরে মিয়ানমারের অসহায় জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। টাইমস

[৭] শনিবার সশস্ত্র বাহিনী দিবসে ১৬৪ জনের হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মহল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক বিবৃতিতে বলেন, অজস্র মানুষকে নির্বিচারে হত্যার ঘটনা মারাত্মক। মিয়ানমারের সেনারা ভয়াবহ ঘটনা ঘটিয়েছে। গার্ডিয়ান

[৮] ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) বলেছে, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সশস্ত্রবাহিনী দিবসকে লজ্জা ও আতঙ্কের দিনে পরিণত করেছে। এ ধরনের হিংসাত্মক ও নারকীয় হত্যাকাণ্ড কোনও মতেই মেনে নেয় যায় না।

[৯] যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়াসহ ১২টি দেশের সেনাপ্রধান যৌথ বিবৃতিতে বলেন, পেশাদার সেনাবাহিনী দেশবাসীকে সুরক্ষিত রাখার আন্তর্জাতিক নীতি মেনে চলে। আমরা মিয়ানমার সেনাবহিনীকে দ্রুত সহিংসতা বন্ধ করে দেশবাসীর কাছে নিজেদের হারানো সম্মান পুনরুদ্ধারের আহ্বান জানাচ্ছি। সিএনএ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত