প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সরাইলে শহীদ মিনারে ফুল দেওয়া নিয়ে বিএনপির দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ১৫

তৌহিদুর রহমান, আরিফুল ইসলাম: [২] ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় শহীদ মিনারে ফুল দেওয়ার সময় বিএনপির দু’গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। শুক্রবার সকালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী দিবসে সংঘর্ষের এ ঘটনায় পুলিশ সহ উভয়পক্ষের অন্তত ১৫জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ছয়জনকে আটক করেছে।

[৩] পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতীয় দিবসে শুক্রবার সকালে উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দেওয়ার এক পর্যায়ে উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব এডভোকেট নুরুজ্জামান লস্কর তপু গ্রুপ ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন মাস্টারের গ্রুপের লোকদের মাঝে এ ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করতে গেলে সংঘর্ষে লিপ্ত বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের ওপর হামলা করে।

[৪] এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব এডভোকেট নুরুজ্জামান লস্কর তপু বলেন, আমরা পুলিশের সাথে কথা বলে তাদের দেওয়া সময়ে সকাল ৭ টার মর্ধ্যে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ফুল নিয়ে শহীদ মিনারে প্রবেশ করা জন্য যাচ্ছিলাম।

[৫] এমন সময় আনোয়ার হোসেন মাস্টারের লেলিয়ে দেয়া যুবদল নেতা মুন্নার বাড়ির ছাদ থেকে হঠাৎ ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে । এসময় আমাদের লোকজন তাদের প্রতিহত করতে গেলে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। পুরো ঘটনা শহীদ মিনারে উপস্থিত সাংবাদিকগণরা দেখেছেন।

[৬] উপজেলা বিএনপি সাবেক সাধারন সম্পাদক আনোয়ার হোসেন মাস্টার বলেন, আমার দলের সাথে সম্পর্ক নাই। আমি শহীদ মিনারে যাইনি। মুন্নার বাড়ির কাছে শহীদ মিনার। মুন্না আমার কথা শুনে না। আমি এই ঘটনার সাথে কোনো ভাবেই জড়িত নই।

[৭] এ বিষয়ে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: নাজমুল আহমেদ বলেন, শহীদ মিনারে যাওয়ার সময় বিএনপির দু’পক্ষের মর্ধ্যে সংর্ঘষ সৃষ্টি হয়। এসময় আমিসহ আমার ৬জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। থানায় মামলা হবে।সম্পাদনা:অনন্যা আফরিন

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত