প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ব্যক্তিগত সচেতনতা ও টিকা গ্রহণের মধ্যে দিয়ে সংক্রমণ কমানো সম্ভব: ডা. এ এস এম আলমগীর

শিমুল মাহমুদ: [২] টানা ২৩ দিন ধরে করোনা সংক্রমণের উর্দ্ধগতি। গতকাল প্রায় ৮ মাস পর সংক্রমণ সাড়ে তিন হাজার ছাড়িয়েছে। ২ শতাংশে হার পৌঁছেছে ১৩ শতাংশে। সংক্রমণ রোধে দেশে টিকা কার্যক্রম শুরু হয়েছে অনেকে আগেই। কিন্তু জনমনে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে টিকা কার্যক্রমের পর উল্টো সংক্রমণ বেড়ে গেলো কি? সংক্রমণ টেকাতে আমাদের করণীয় ও গবেষণা কি হচ্ছে?

[৩] এমন প্রশ্নে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এর মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. এ এস এম আলমগীর বলেন, আমরা যখন টিকা কার্যক্রম শুরু করেছি। তখন বারবার পরামর্শ দিয়েছি স্বাস্থ্যবিধির বাইরে গেলে সংক্রমণ আবার বেড়ে যাবে। পৃথিবীর বহুদেশ একইভাবে সংক্রমণ কমছে আবার বাড়ছে। যার ফলে এখন অনেক দেশ লকডাউনে রয়েছে।

[৪] তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে, এ ভাইরাসটি সম্পূর্ন নতুন। আমরা গত ১৫ মাস যাবত দেখছি ভাইরাসটি অনবরত পরিবর্তন হচ্ছে। সকল পরিবর্তন যে ভাইরাসটিকে বিপদজনক করে তুলবে এমনও নয়। কিন্তু কিছু কিছু দেশে সেটা হচ্ছেও। যা পৃথিবীময় ছড়িয়ে পরছে।

[৫] ডা. আলমগীর বলেন, পৃথিবীতে যতো রকমের ভ্যারিয়েন্ট তৈরি হয়েছে প্রতিটির প্রতিরোধ ব্যবস্থা এক রকম। অর্থাৎ আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। এখন যেহেতু আমরা টিকা প্রয়োগ শুরু করেছি। যাদের বয়স ৪০ উর্দ্ধ বা ফ্রন্টলাইনার যারা আছেন তারা যদি রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নিয়ে নেন তাহলে কিন্তু আরেকটা প্রতিরোধ ব্যবস্থা যুক্ত হয়।

[৬] আইইডিসিআর মুখ্য এ বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা বলেন, অনেকে আবার মনে করছেন টিকাই একমাত্র প্রতিষেধক  এটা আসলে একমাত্র প্রতিষেধক না অন্যতম প্রতিষেধক। বাস্তবতা হলো টিকা নিতে হবে, স্বাস্থ্যবিধিও মানতে হবে।

[৭] তিনি বলেন, আমরা আতঙ্কিত তৈরি করতে চাই না। তবে আতঙ্কিত হওয়ার যথেষ্ট উপাদানও আমাদের রয়েছে। এখন আমার নিজেরা যতি সর্তক না হই তাহলে এ সংক্রমণ রোধ সম্ভব নয়। প্রয়োজন ব্যক্তিগত সচেতনতা। সরকারের কঠোর ব্যবস্থা বা আইন প্রয়োগ সম্ভব নয়।

[৮] এস এম আলমগীর বলেন, যাদের পরিবারের লোকজন কোভিডে মারা গেছে একমাত্র তারাই বুঝে কতো কঠিন অবস্থার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। আজকে আমরা যারা ঢিলেঢালা ভাবে চলছি। অনেকে বলছি গ্রামে কম শহরে বেশি এর কোনোটাই গবেষণার উপর না। একমাত্র সচেতনতায় পারে আমাদের মুক্তি দিতে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত