প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চাহিদা মেটাতে, ভারত থেকে তেঁতুল বীজ আনছে বাংলাদেশ

মিনহাজুল আবেদীন: [২] আচার ও আচার জাতীয় খাবার হিসেবে তেঁতুল বেশ জনপ্রিয়। বাংলাদেশে সম্প্রতি ভারত থেকে ৯০ মেট্রিক টন তেঁতুলের বীজ আমদানি করা হয়েছে। প্রতি টন তেঁতুলের বীজ ২০০ মার্কিন ডলার মূল্যে আমদানি করা হয়েছে।

[৩] তেঁতুলের বীজ আমদানিকারক সত্যজিৎ দাস বিবিসিকে বলেছেন, বাংলাদেশে মূলত পাটকল ও কাপড়ের মিলে সুতা রং টেকসই করার কাজে তেঁতুল বীজ ব্যবহার করা হয়। এছাড়া মশার কয়েল তৈরির কাজে কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার হয়। যেসব উদ্যোক্তারা এখন কয়েল তৈরি করছেন, তারাই এই আমদানিকৃত তেঁতুলের বীজের বড় ক্রেতা। তেঁতুল বীজ ওষুধিগুণের কারণেও খুব প্রয়োজন হয়।

[৪] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক শামীম শামছি বলেছেন, তেঁতুল বীজ ইউনানি, আয়ুর্বেদ, হোমিও এবং অ্যালোপ্যাথি ওষুধের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার হয়। তিনি বলেন, শুষ্ক চোখের চিকিৎসায় যে ড্রপ তৈরি হয়, তাতে তেঁতুল বীজ ব্যবহার করা হয়। এছাড়া পাকস্থলীর গোলযোগ, লিভার ও গল-ব্লাডারের সক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে তেঁতুল বীচ। গর্ভকালীন বমিভাব ও মাথাঘোরার সমস্যায় তেঁতুল বীজের শরবত উপকারী। তেঁতুল বীজ গরম পানিতে ফুটিয়ে এক ধরনের আঠা তৈরি করা হয়, যা ছবি আকার কাজে ব্যবহার করা হয়। সম্পাদনা: রাশিদ

সর্বাধিক পঠিত