প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ৮ বছরে সহস্রাধিক মামলার জটে সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনাল, দুই মাসে মামলা ৪৪৭টি

রাশিদুল ইসলাম : [২] ২০১৩ সালে সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠা করা হয়। গত জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে সারাদেশে ৪৪৭টি মামলা হয়েছে এ ট্রাইব্যুনালে। গত বছর সহস্রাধিক মামলা হয়েছে। ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্টে গ্রেফতারও করা হয়েছে অনেককে। ঢাকা ট্রিবিউন

[৩] দিনে গড়ে ৫টি মামলা হচ্ছে এ ট্রাইব্যুনালে। ২০১৫ সালে মামলার পরিমান দ্রুত বাড়তে থাকে। ২০১৩ সালে ৩টি, পরের বছর ৩৩, ২০১৫ সালে ১৫২, ২০১৬ সালে ২৩৩, ২০১৭ সালে ৫৬৮, ২০১৮ সালে ৯২৫, ২০১৯ সালে ১১৮৯, ২০২০ সালে ১১২৮টি মামলা হয়েছে।

[৪] ট্রাইব্যুনাল গঠনের পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি আইন করার পর তা ২০১৮ সালে ফের তা সংশোধন করা হয়।

[৫] ট্রাইব্যুনাল ১৩৫টি মামলার রায় দিয়েছে। ২১টি মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তিদের সাজা হয়েছে। বাকি ১১৪টি মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি।

[৬] ১২৪টি মামলায় কোনো ভিত্তি না থাকায় ট্রাইব্যুনাল তা বাতিল করে দেয়।

[৭] ট্রাইব্যুনালে মামলার জট লেগে যাওয়ার কারণ হচ্ছে তদন্তে ধীরগতি আর এর কারণ হচ্ছে তদন্তকারী কর্মকর্তা, সাক্ষী, অভিযোগকারী ও অভিযুক্ত সকলকেই ঢাকায় আসতে হয় যে কারণে বিচার প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত ও বিলম্বিত হয়ে পড়ে। সাক্ষীরা ভ্রমণ ও ঢাকায় অবস্থান করার ব্যয় বহন করতে চায় না, অন্যদিকে অভিযুক্ত ও অভিযোগকারীদের ঢাকায় আইনজীবী খুঁজে পেতেও ঝক্কি ঝামেলা পোহাতে হয়।

[৮] ঢাকায় আইনজীবীর খরচও পড়ে বেশি।

[৯] স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম শামিম বলেন বিভাগীয় পর্যায়ে এধরনের ট্রাইব্যুনাল গঠিত হলে অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। সরাকর এধরনের একটি প্রস্তাব ইতোমধ্যে অনুমোদন দিয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত