প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ড. আসাদুজ্জামান রিপন: আমরা কখন আদালতের এমন একটি মন্তব্য শুনবো?

ড. আসাদুজ্জামান রিপন: বাংলাদেশের সংবিধানে কি নাগরিকের বা বিরোধী দলের নেতা কর্মীদের সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলা কিংবা যেকোনো বিষয়ে ভিন্নমত প্রকাশ করাকে 'রাষ্ট্রদ্রোহ' বলে বিবেচনা করে? আমার তো তা মনে হয়না।
অথচ সরকারের কিছু অনুগত কথিত সংগঠন আছে যারা কথায় কথায় বিভিন্ন সময় বিরোধী নেতাদের কোনো কথার প্রেক্ষিতে 'রাষ্ট্রদ্রোহ'র অভিযোগ এনে দেশের বিভিন্ন জেলায় জেলায় মামলা করে বিরোধী নেতাদের হয়রানি করে আর কোর্টের মূল্যবান সময় নষ্ট করে।
এখন সময় হয়েছে, এসব বরকন্দাজ/আজ্ঞাবাহী দের বলে দেয়া: ভিন্নমত প্রকাশের প্রতিফলন হয়- যখন কোনো রাষ্ট্রে কথা বলার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা থাকে এবং সংবিধান নাগরিকদের সেই অধিকার সুরক্ষা দেয়।
পার্শ্ববর্তী দেশ ইন্ডিয়ায় উচ্চ আদালত তাই বলে দিয়েছে যখন ওদেশে সরকার ও আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাগুলো সারা ভারতে সমালোচকদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় ভিন্নমতের লোকেরা দিশেহারা হয়ে পড়ছিলো।
Times of India এমনই একটি খবর ছেপেছে এবং তাতে লিখেছে:
"Dissent" is a form of free speech and expression and these rights are protected under the Constitution, the Indian apex court said.
The comments came at a time when government and law enforcement agencies across India have been slapping sedition charges against critics, the report concluded.

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত