প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শওগাত আলী সাগর:  সিএনএন-এর প্রাইম টাইম শোর হোস্ট ক্রিস কোমো, তার বড় ভাই নিউইয়র্ক শহরের গভর্নর এন্ড্রু কোমোর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এবং সাংবাদিকতা

শওগাত আলী সাগর: বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ নিয়ে চারদিক তোলপাড় হচ্ছে। ছোট ভাই সাংবাদিক, সিএনএন-এর মতো প্রভাবশালী প্রতিষ্ঠানের প্রাইম টাইম শো’র হোস্ট। রাজ্যের হেন কোনো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নেই, যা নিয়ে তিনি তার শোতে আলোচনা করেন না। বড় ভাইর বিষয়টি নিয়ে তিনি কী করবেন! নিউইয়র্ক শহরের গভর্নর তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ, রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু, দর্শকরা নিশ্চয়ই আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছে এন্ড্রু কোমোর বিরুদ্ধে অভিযোগের পুঙ্খানুপুঙ্খ জানার জন্য! প্রাইম টাইম শোর হোস্ট ক্রিস কোমো একেবারে শুরুতেই জানিয়ে দিলেন, তিনি গভর্নর কোমোর বিষয়টি নিয়ে এই শোতে আলোচনা করবেন না। কেন করবেন না, সেটিও তিনি জানালেন, গভর্নর কোমো তার বড় ভাই, বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ নিয়ে তিনি তার শোতে আলোচনা করবেন না। ক্রিস কোমো কি তার ভাইয়ের প্রতি পক্ষপাত করলেন! মোটেও তা না। ২০১৩ সালে সিএনএন-এ যোগ দেন ক্রিস। প্রাইম টাইম শোর হোস্ট হওয়ার পর কার্যত এই শোতে গভর্নর কোমো একরকম নিষিদ্ধই হয়ে যান। কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট যাতে না হয়, পাঠক যাতে মনে না করে ভাই ভাইয়ের প্রতি পক্ষপাত করছে, সেই কারণে গভর্নর কোমোর যেকোনো ধরনের সংবাদে ক্রিস কোমোর উপস্থিতি কিংবা সংশ্লিষ্টতা একেবারেই নিষিদ্ধ করে দেয় সিএনএন।

গত মার্চে ক্রিস কোমো কোভিড আক্রান্ত হয়ে নিজ বাড়ির বেসমেন্টে কোয়ারেন্টিনে যান। সেই সময় করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে গভর্নর কোমোর প্রতিদিনকার দুপুর বেলার ব্রিফিংটা তুমুল জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। সিএনএন তাদের  বিধিনিষেধ রহিত করে ক্রিসকে গভর্নর কোমোর নিউজ করার অনুমতি দেয়। জুন মাসে এসে সিএনএন আবার আগের জায়গায় ফিরে যায়। ক্রিসের ওপর তার ভাইয়ের যেকোনো নিউজ থেকে দূরে থাকার নিয়ম পুনরায় কার্যকর হয়। তারই ধারাবাহিকতায় ক্রিস কোমো প্রাইম টাইম শোতে গভর্নর কোমোর বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে আলোচনা করবেন না বলে দর্শকদের জানিয়ে দেন।

ক্রিস অবশ্য দর্শকদের জানিয়ে দিয়েছেন, গভর্নর কোমোর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ নিয়ে সিএনএন ডিটেইল খবর আলোচনা প্রচার করছে। দর্শক সেগুলো দেখতে পারেন। সিএনএন এবং ক্রিস নিজে পেশাগত দায়িত্ব পালনে নিরপেক্ষ থাকার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিলেও সমালোচনা এড়াতে পারছেন না। সাংবাদিকতার পণ্ডিতরা বলছেন, সিএনএনএর উচিত, কিছু দিনের জন্য ক্রিসকে ছুটিতে পাঠিয়ে দেওয়া কিংবা প্রাইম টাইম শো-এর হোস্ট থেকে তাকে আপাতত সরিয়ে দেওয়া। সিএনএন অবশ্য এ নিয়ে আর কোনো প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেনি। সিএনএন-এর কি উচিত ছিলো ক্রিসকে ছুটিতে পাঠিয়ে দেওয়া বা প্রাইম টাইম শো থেকে আপাতত অব্যহতি দেওয়া? সাংবাদিক এবং সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীরা কি বলেন? বি.দ্র. মিলন গোমস্তার মন্তব্যের সূত্র ধরে পোস্টটি আপডেট করা হয়েছে। লেখক : সিনিয়র সাংবাদিক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত