প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে নাগরিক সমাজের পদযাত্রা, সংস্কার নয়, ২৬ মার্চের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি

শিমুল মাহমুদ, মহসীন কবির: [২] কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর প্রতিবাদ এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে বুধবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রা কর্মসূচি থেকে দাবি জানানো হয়।

[৩] গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর নেতৃত্বে বিভিন্ন সংগঠনকে নিয়ে এ ‘নাগরিক সমাজ’ প্ল্যাটফর্ম গড়ে তোলা হয়েছে।

[৪] সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে সামনে থেকে এ পদযাত্রা শুরু হয়। মিছিলটি প্রথমে প্রেসক্লাবসংলগ্ন কদম ফোয়ারার সামনে পুলিশের দেওয়া ব্যারিকেডে বাধা পড়ে। পরে মৎস্য ভবনে ও শাহবাগ এলাকায় ব্যারিকেড ভেঙ্গে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের সামনে এলে সেখানে শক্ত ব্যারিকেডে আটকা পড়ে মিছিলটি।

[৫] এসময় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, আমাদের দাবি একটাই, এই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করে দিতে হবে। এটা সংস্কারের প্রয়োজন নাই, আমরা সংস্কার চাই না, আমরা এটা বাতিল চাই।

[৬] এরআগে জাতীয় প্রেসক্লাবে সামনে বলেন, প্রধানমন্ত্রী আপনি ভারতীয় গোয়েন্দা বাহিনীর ‘র’ ইসরাইলের গোয়েন্দা বাহিনী ‘মোসাদ’ এ পরিবেষ্টিত হয়ে অন্ধকার ঘরে থেকে আপনি আত্মরক্ষা করতে পারবেন না। আপনাকে জাতির পিতার অমর বাণী স্মরন করিয়ে দিতে চাই, ‘দাবায়ে রাখতে পারবা না’। চারদিকে তাকিয়ে দেখেন ক্রমেই মানুষ জাগতে শুরু করেছে।

[৭] আলোকচিত্রী শহিদুল আলম বলেন, এই সরকারের শক্তি আছে, অনেক ক্ষমতা আছে। পুলিশ বাহিনী তাদের হাতে, আমলারা হাতে। তার চেয়েও বেশি শক্তি হলো তারা নির্লজ্জ। কেউ হাঁচি দিলেও তারা থামাতে চায়। এই নিপীড়ক সরকার আছে বলেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আছে। এটি বাতিলের দাবিতে প্রকাশ্যে সবাইকে রাস্তায় নামা ছাড়া উপায় নেই।

[৮] বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান বলেন, এই আইনটাই (ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন) স্বাধীনতার চেতনার পরিপন্থী। সত্যিকার অর্থে স্বাধীনতাকে নিশ্চিত করতে হলে এই আইন বাতিল করতে হবে। ডিজিটাল নিরাপত্তার জন্য ডিজিটাল বিশেষজ্ঞদের নিয়ে নতুন আইন করতে হবে।

[৯] নাগরিক সমাজের পক্ষে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, ২৬ মার্চের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করা না হলে ‘কঠোর আন্দোলন’ গড়ে তোলা হবে।

[১০] জাফরুল্লাহ চৌধুরীর পাশাপাশি নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, অধ্যাপক রেহেনুমা আহমেদ, আলোকচিত্রী শহিদুল আলম, ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা এ পদযাত্রায় অংশ নেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত