প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চলতি মাসে দুটি তীব্র কালবৈশাখী ও বজ্রবৃষ্টির আভাস

ডেস্ক রিপোর্ট : এই মধ্য ফাল্গুনেই তাতিয়ে উঠছে আবহাওয়া। প্রতিদিন বাড়ছে তাপমাত্রা। মঙ্গলবার যশোরে খরচৈত্রের মতো তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে। দিনভর কড়া সূর্যের তেজে গা ঝলসানো, ঘাম ঝরানো অবস্থা।  ইত্তেফাক

আবহাওয়া দপ্তর বলছে ৪০ ডিগ্রি ছাড়িয়ে যাবে দাবদাহ। গরমের দাপট দেখাবে চৈত্র মাস। একই সঙ্গে চলতি মাসের মাঝামাঝি থেকে শুরু হবে বজ্রসহ বৃষ্টি, শিলাবৃষ্টি, কালবৈশাখী। চলতি মাসে এক-দুইটি মাঝারি থেকে বড় ধরনের কালবৈশাখী এবং দু-তিনটি শিলাবৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। আগামী ৬ বা ৭ মার্চ ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান বলেন, চলতি মাস থেকেই বাড়ছে তাপমাত্রা। তাপমাত্রা বাড়লে আবহাওয়ায় পরিবর্তন ঘটে। এই সময়ে কালবৈশাখীর দেখা পাওয়া যায়। চলতি মাসের শেষে এক থেকে দুটি কালবৈশাখী হতে পারে। এছাড়া মাঝামাঝি সময়ে কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়, চলতি মাসে স্বাভাবিক অপেক্ষা কম বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে। এ মাসে উত্তর, উত্তর-পশ্চিম ও মধ্যাঞ্চলে এক-দুই দিন বজ্র ও শিলাবৃষ্টিসহ মাঝারি ধরনের বা তীব্র কালবৈশাখী এবং দেশের অন্য এলাকায় দু-তিন দিন বজ্র ও শিলাবৃষ্টিসহ হালকা বা মাঝারি ধরনের কালবৈশাখী হতে পারে। তাপমাত্রার বিষয়ে বলা হয়, এ মাসের দিনের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা বেশি থাকতে পারে। মাসের শেষ দিকে পশ্চিম ও উত্তর পশ্চিমাঞ্চলে এক-দুটি মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। সে সময় তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠতে পারে।তাপমাত্রার বিষয়ে আবহাওয়াবিদ আব্দুল হামিদ বলেন, ৫ মার্চ পর্যন্ত তাপমাত্রা একই থাকবে এবং আবহাওয়া একই রকম থাকবে। এরপর ৬ বা ৭ মার্চ ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে। অতঃপর তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করবে। মাসের শেষদিকে কোথাও কোথাও তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সিনিয়র আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ বলেন, এখন দিনের তাপমাত্রা ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করেছে। দিনের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে সামান্য বাড়লেও রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিক থাকতে পারে।

অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ জানান, এ মাসের দেশের উত্তর, উত্তর-পশ্চিম ও মধ্যাঞ্চলে এক-দুই দিন বজ্র ও শিলাবৃষ্টিসহ মাঝারি অথবা তীব্র কালবৈশাখী বয়ে যেতে পারে। এ সময় দেশের অন্য স্থানে দুই-তিন দিন শিলাবৃষ্টি ও বজ্রসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কালবৈশাখী হতে পারে।

গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় ১৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। এছাড়া শেষরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও হালকা কুয়াশা পড়তে পারে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত