প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মাঠ পর্যায়ে নির্মাণ শ্রমিকের সংকট রয়েছে, পূর্বাচলের উন্নয়ন কাজ পুরোদমে শুরু হয়েছে

সুজিৎ নন্দী: [২] করোনায় প্রকল্পের মেয়াদ ২০২১ সালের জুনে শেষ হবার কথা থাকলেও করোনার কারণে প্রায় এক বছর পিছিয়ে গেছে। ২০২২ সালের মধ্যে পূর্বাচলের পুরোকাজ শেষ হবে।

[৩] প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, প্রকল্প বাস্তবায়নে পরিচালক ও মাঠ পর্যায়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত একাধিক কর্মকর্তা কর্মচারি জানান, তাদের সুবিধা অনুযায়ী দক্ষ শ্রমিকের অভাব দেখা দিয়েছে। ফলে শত চেষ্টা সত্ত্বেও নির্ধারিত সময়ে মানসম্পন্ন ও দক্ষ শ্রমিক দ্বারা কাজ করতে পারছে না প্রকল্পের দায়িত্বপ্রাপ্তরা।

[৪] এ বিষয়ে প্রকল্পের পরিচালক উজ্জল মল্লিক বলেন, প্রকল্প কাজ মূলত বন্ধ নেই। নির্দিষ্ট কিছু কাজ ছাড়া আমরা অফিসিয়াল প্রায় সকল কাজ চালু রেখেছি।

[৫] রাজউকের প্রকৌশল বিভাগ জানায়, প্রকল্পের মূল কাজ সম্পাদিত হয় শুষ্ক মৌসুমে। এ বছর শুষ্ক মৌসুমে প্রকল্পের নির্ধারিত কাজ করতে না পারার ফলে বর্ষাকাল চলে আসায় কোনক্রমেই প্রকল্পের কাক্ষিত অগ্রগতি হবে না। নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ না হলে প্রকল্প পিছিয়ে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে।

[৬] সূত্র মতে, দেশের সর্ববৃহৎ কৃত্রিম লেক পূর্বাচলে খনন করা হচ্ছে। বিশাল এ খালটির দৈর্ঘ হচ্ছে প্রায় ৪৮ দশমিক ২০ কিলোমিটার। যেটি তৈরি হলে শহরটির বর্তমান রূপ সম্পূর্ণ পাল্টে যাবে। এর মধ্যে এ লেকের উন্নয়ন কাজ এ পর্যন্ত বেশির ভাগই শেষ হয়েছে।

[৭] প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, আংশিক চালু থাকায় নির্মাণ সামগ্রী হিসেবে ব্যবহৃত রড সিমেন্ট পাথরের অপ্রতুলতা দেখা দিয়েছে। এছাড়া পণ্য পরিবহন করতে পারলেও মূল কাজ করার জন্য শ্রমিকই পাওয়া যাচ্ছে না।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত