প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নিজস্ব উদ্যোগে নগর ভবন করার পরামর্শ দিলেন ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন

রাজু চৌধুরী: প্রি - একনেকে পর্যবেক্ষণ পর্যায়ে থাকা চট্টগ্রাম নগরীর আন্দরকিল্লাস্থ নগর ভবনের কাজ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নিজস্ব উদ্যোগে করার পরামর্শ দিয়েছেন সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন। নগর ভবন প্রকল্পে আছে ২টি বেজমেন্ট। চসিক কার্যালয়ের পাশাপাশি অত্যাধুনিক এ ভবনে থাকবে কমার্শিয়াল স্পেস, ব্যাংক বিমার কার্যালয়।

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) টাইগারপাসে চসিকের অস্থায়ী কার্যালয়ে মেয়র মোহাম্মদ রেজাউল করিম চৌধুরীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এ পরামর্শ দেন। এর আগে মেয়র ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে বর্ষীয়ান এ রাজনীতিককে বরণ করেন।

ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, হকার মার্কেট আছে, কিন্তু ওখানে ব্যবসা যারা করছে তারা হকার না। বিল্ডিং কোড না মেনে সুউচ্চ বিল্ডিং করা হয়েছে বিল্ডিং কোডের বিষয়ে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষও আন্তরিক নয়। যেকোনো ভবন ফুটপাত থেকে ৫ ফুট দূরত্বে নির্মাণের আইন থাকলেও কিন্ত কেউ মানছে না। ফলে জনজীবন বিপর্যস্ত। কর না দিলে সিটি কর্পোরেশন সেবা দেবে কীভাবে? এ শহর সবার। তাই মিলেমিশে এ নগরকে সুন্দর করতে হবে।
ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ মন্ত্রিত্বকালীন অভিজ্ঞতা ও দেশ-বিদেশে ভ্রমণের আলোকে চসিককে আত্মনির্ভরশীল করতে আয়বর্ধক প্রকল্প নেওয়ার পরামর্শ দেন মেয়রকে। তিনি নিম্নআয়ের ও শহরের বস্তিবাসীর পুনর্বাসনে কমমূল্যে কোনো আবাসনের প্রকল্প নেওয়া যায় কিনা তা ভাবতে বলেন।

মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, আমি বুঝে শুনে ধীরে সুস্থে পরিকল্পিত উপায়ে এগুতে চাই। করপোরেশনের আর্থিক অবস্থা বর্তমানে খুব একটা ভালো না। এ সীমাবদ্ধতার মধ্যেই আমাদের কাজ করতে হবে। তাই পরিচ্ছন্ন নগর গড়তে প্রয়োজনে পাইলট প্রকল্প নিয়ে প্রাথমিক পর্যায়ে দুইটি ওয়ার্ডের পরিচ্ছন্ন কাজ আউট সোর্সিংয়ে দেওয়া যায় কিনা দেখবো। যদি সুফল মিলে তবে ধারাবাহিকভাবে সব ওয়ার্ড দিয়ে দেওয়া হবে।

ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরীকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে বলে কথা দেন।

এ সময় রাজনীতিক অ্যাডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, শফিক আদনান, হাসান মাহমুদ শমসের, জসিম উদ্দিন শাহ, নুরুল আনোয়ার বাহার, চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম, মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাসেম, অতিরিক্ত প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ঝুলন কুমার দাশ, সুদীপ বসাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত