প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]ভারত বায়োটেক টিকা প্রয়োগ করেছে, বঙ্গভ্যাক্স এখনো প্রথম ট্রায়ালের অনুমোদনই পায়নি

শিমুল মাহমুদ: [২] গ্লোব বায়োটেক গত বছরের ৮ মার্চ বঙ্গভ্যাক্স তৈরির ঘোষণা দেয়। প্রতিষ্ঠানটির হেড অব কোয়ালিটি অপারেশন ড. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, তারা ১৭ জানুয়ারি বিএমআরসিতে ইথিক্যাল অনুমোদনের জন্য আবেদন করেন। রিভিউ কমিটির কিছু মন্তব্য ও কোয়ারি ছিলো, সেটা তাদের পিআই’র মাধমে ১৭ ফেব্রুয়ারিতে জমা দিয়েছেন। এখন বিএমআরসি’র অনুমোদন পেলে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে যাবে।

[৩] গ্লোব বায়োটেকের রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান ড. আসিফ মাহমুদ জানান, বঙ্গভ্যাক্স একমাস পর্যন্ত ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে রাখা যাবে। আর মাইনাস ২০ ডিগ্রিতে ছয় মাস পর্যন্ত রাখা যায়।

[৪] যুক্তরাজ্যের শেফিল্ড ইউনিভার্সিটির সিনিয়র রিসার্চ অ্যাসোসিয়েট ড. খোন্দকার মেহেদী আকরাম বলেন, বঙ্গভ্যাক্স ইতিমধ্যে ফেইজ-৩ ট্রায়াল ফেল করেছে। এখন প্রয়োজন ভ্যাকসিনটা মানুষের ওপরে টক্সিসিটি করে কিনা, হিউম্যানের ওপরে ইমিউনো রেসপন্স করে কিনা- এই দুটি ডেটা সম্পন্ন করা।

[৫] মাইক্রোবিয়াল বায়োটেকনোলজিস্ট ড. শোয়েব সাঈদ বলেন, বাংলাদেশের মানুষকে দেওয়া দুই ডোজের ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা সর্বোচ্চ একবছর। এই এক বছরের মধ্যে যদি হার্ড ইউমিনিটির মধ্যে প্রবেশ করতে না পারে, তাহলে আবারো এ সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে। তার মানে ভ্যাকসিন রির্জাভ আমাদের সবসময় রাখতে হবে। এর মধ্যে যদি বঙ্গভ্যাক্স উৎপাদনে আসতে পারে সেটি দেশের খুবই উপকারে আসবে। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত