প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রবিউল আলম: ইংরেজি সাইনবোর্ড অপসারণ করলেই কি বাংলা ভাষাকে সম্মান করা হয়?

রবিউল আলম: একুশ কি তামাশায় পরিণত হচ্ছে?  নাকি একুশ নিয়ে আমাদের সঙ্গে মজা করা হচ্ছে, বুঝতে পারছি না। একুশ এখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। মায়ের ভাষায় কথা বলার জন্য বাঙালির ভাষা আন্দোলনকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে, জাতিসংঘের মাধ্যমে বিশ্ব গ্রহণ করেছে আমাদের অর্জন একুশকে। পৃথিবীর অনেক দেশে ভাষা দিবস পালন করা হয় একুশে ফ্রেরুয়ারি। বিশ্বের সকল মায়ের ভাষার স্বীকৃতি আদায় করেছে বাংলা, বাঙালি। আমরা গর্ব করতেই পারি।

ইংরেজি কি কোনো মায়ের ভাষা নয়? আমরা কি অন্য ভাষাকে অপমান, অপসারণ করতে পারি? একুশ এলেই সিটি কর্পোরেশন ও সরকারের কিছু সংস্থা ইংরেজি সাইনবোর্ড অপসারণের ব্যস্ত হয়ে পরে। মিডিয়া ব্যাপকভাবে প্রচারও করে। অথচ নিজের সংস্থার বিজ্ঞাপনগুলো এখনো ইংরেজিতে প্রচার করেন।

বাংলা আমার মাতৃভাষা হলে বিশ্বের সকল জাতির মায়ের ভাষাকে আমাদের সম্মান করতে হবে, তবেইতো আমাদের একুশকে বিশ্ব মাতৃভাষার সম্মানের আসনে অধিষ্ঠিত করবে। সফল হবে বাঙালির ভাষার জন্য আন্দোলন। আমরা বিশ্বের সকল মায়ের ভাষাকে গ্রহণ করলেই স্বার্থক হবে একুশ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ইংরেজি সাইনবোর্ড ভেঙে ভাষাকে অপমাণ করবেন না, আমাদের আন্তর্জাতিকভাবে ছোট হতে হয়, জবাবদিহি করতে হয়। লেখক : মহাসচিব, বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত