প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]হাটহাজারী পৌর শহরে প্রতিনিয়ত বাড়ছে যানজট

মোহাম্মদ হোসেন:[২] চট্টগ্রাম-হাটহাজারী ও রাঙ্গামাটি মহাসড়কের হাটহাজারী বাসস্টেশন মোড়ে
ফিটনেসবিহীন যানবাহন দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে বাড়ছে যানজট। ট্রাফিকপুলিশ মোতায়েন থাকলেও বাসস্টেশন মোড় এরাকায় যানজটমুক্ত হচ্ছে না্। যার কারনে দিনের পর দিন যানজট তীব্র আকার ধারন করছে।

[৩] সীমাহিন দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন যাত্রী সাধারণকে। আর এখানে ট্রাফিক সার্জেন্ট মোতায়েন থাকলেও তারা সব সময় ১১ মাইল আর থানার পাশে বিভিন্ন যান বাহন আটকানোর কাজে ব্যস্ত থাকেন।

[৪] হাতে ঘোনা আর মাত্র কয়েক দিন পরে ঈদ বিভিন্ন স্থান থেকে আসা ঘরমুখী মানুষ গুলো এই যানজটে পড়ে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় নষ্ট হচ্ছে। এ সড়কে ফিটনেসবিহীন গাড়ি গুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে যানজট ভয়াবহ আকারধারণ করতে পারে। কয়েকদিন প্রশাসনের দৌড় দেখা গেলেও আবার থেমে যায়।

[৫] হাটহাজারী জিরো পয়েন্ট যানজট মুক্ত করতে প্রশাসনের জোরালো ভুমিকা না থাকায় এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে জানান ভুক্তভোগিরা। রাস্তা উপর শত শত গাড়ি দাঁড় করে রাখার ফলে পথচারীরা পড়ছে নানা দুর্ভোগে। তা ছাড়া এ সব গাড়ি উপ -সড়কে অবৈধ যানবাহনের দৌরাত্ম্য দিন -দিন বেড়েই চলছে।

[৬] অদক্ষ চালকদের বেপরোয়া চালনা আশংকাজনক হারে বেড়েই চলায় যাত্রী সাধারণ চরম ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে। উপজেলার ছোট – বড় রাস্তায় টমটম,ভটভটি, ইজিবাইক, অটোরিকশাসহ ঝুঁকিপূর্ণ যানবাহনের চলাচল বন্ধ হচ্ছে না।মহাসড়কে এখনো নির্বিঘ্নে চলছে অবৈধ যানবাহন। ফলে সড়কে এসব যানবাহনের কারণে প্রায়শ ঘটছে অহরহ দুর্ঘটনা।

[৭] হাটহাজারীতে নিয়োজিত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সামিউর রহমান সাথে মোঠো ফোনে কথা হলে তিনি বলেন,চেষ্টা করি যানজটমুক্ত করার জন্য কিন্ত এখানকান কিছু লোক প্রভাব খাটিয়ে অহেতুক ভাবে রাস্তায় গাড়ি দাড়ঁ করে বেকায়দায় ফেলে দেয়।এতে বাসস্টেশন জিরো পয়েন্ট এলাকায় যানজট সৃষ্টি হয়ে থাকেন।

[৮] তিনি আরো বলেন, যানজট মুক্ত করার জন্য বিষয় গুলো ট্রাফিক পুলিশ এর পাশাপাশি হাইওয়ে
পুলিশের সহযোগিতা চাওয়া হচ্ছে। হাইওয়ে পুলিশ তাদেরকে একটু সহযোগিতা করলে বাসস্টেশন জিরো পয়েন্ট এলাকাটি যানজটমুক্ত হবে বলে তিনি আশা করেন। সম্পাদনা:অনন্যা আফরিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত