প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মির্জাপুরে অবাধে চলছে অবৈধভাবে মাটি কাটায় হুমকির মুখে সেতু

মাজহারুল শিপলু: [২] টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে থেমে নেই মাটি কাটার মহা উৎসব। যার কারণে হুমকির মুখে পড়েছে উপজেলার উত্তরাঞ্চলের যাতায়াতকারী মানুষের বহুকাঙ্খিত বীর মুক্তিযোদ্ধা একাব্বর হোসেন সেতু ও ফসলি জমি। একই সঙ্গে বাড়িঘর ভাঙনের দুশ্চিন্তায় দিন পার করছেন নদী পারের বহু পরিবার।

[৩] সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, রাতের আঁধারে অবাধে ভেকু মেশিন দিয়ে মাটি কেটে নিচ্ছে প্রভাবশালী মহল। এসব মাটি বড় ও ছোট ড্রাম ট্রাক যোগে বিভিন্নস্থানে বিক্রি করা হচ্ছে, যাচ্ছে বিভিন্ন ইটভাটা ও স্থাপনার কাজে। যদিও মাটি ব্যবসায়ীদের দাবি তারা এলাকার উন্নয়নের কাজের জন্য এসব মাটি বিক্রি করছেন। আর এভাবেই তারা হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা।

[৪] স্থানীয় একাধিক ব্যক্তির অভিযোগ, মাটি কাটার সঙ্গে জড়িতরা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের কিছু বলতে গেলেও নানা সমস্যার মুখোমুখী হতে হয়। প্রভাবশালীদের ভয়ে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ পর্যন্ত দিতে পারেননি ভুক্তভোগী অসহায় পরিবারের সদস্যরা। অনেকেই আবার দলীয় পদ বলে এসব ব্যবসা পরিচালনা করছেন বলে জানান এলাকাবাসী।

[৫] সরেজমিনে উপজেলার পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের সওদাগড়পাড়া ও বংশাই নদী এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, মাটি কাটার ফলে বীর মুক্তিযোদ্ধা একাব্বর হোসেন সেতু হুমকির মুখে ও নদী তীরবর্তী মানুষের ঘরবাড়ি বিলীনের পথে প্রায়।

[৬] অপরদিকে উপজেলার ভাওড়া ইউনিয়নের সরিষাদাইড়, সরকারপাড়া, মারিশনপাড়াসহ ওই ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি স্থানে ফসলি জমির মাটি অন্যত্র বিক্রি করছে একটি চক্র। ফলে ফসলি জমি নষ্টের পাশাপাশি আবাদ করতে না পারায় ওই এলাকার খেটে খাওয়া কৃষকরা অসহায় হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

[৭] এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক বলেন, মাটি কাটার জন্য কাউকেই অনুমতি দেয়া হয়নি। জানতে চাইলে বলেন, ১০ চাকার ড্রাম ট্রাক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। যদি কেউ অবৈধভাবে মাটি কাটে এবং গাড়ি চালায় তাহলে আমরা তাদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেবো। মাটি কাটা বন্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন তিনি। সম্পাদনা: হ্যাপি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত