প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ইশারকের গাড়ি বহরে পুলিশি বাধার অভিযোগ, উঠতে দেওয়া হয়নি ফেরিতে

শাহানুজ্জামান টিটু: [২] বিএনপির এই নেতা বলেন, বরিশালে সমাবেশে যাওয়ার পথে আমাকে পুলিশি বাধা দেওয়া হয়েছে। তার গাড়িবহরকে ফেরিতে উঠতে দেওয়া হয়নি। মাওয়া ফেরিঘাট থেকে ফেরিগুলো সরিয়ে কাঠাল বাড়ি ঘাটে নিয়ে যায়। সেখানে তারা অফিস বন্ধ করে চলে যায়। আমাদের সঙ্গে প্রায় ২৫টির মত গাড়ি ছিলো। আমাদেরকে বাধা প্রদানের জন্য এগুলো করা হয়েছে। পরবর্তীতে লঞ্চে পার হয়েছি।

[৩] ইশরাক হোসেন বলেন, এভাবে বাধা দিয়ে আমাদেরকে আটকাতে পারবে না। এটা ন্যাক্কারজনক ও অত্যন্ত নিচু মনের। সমাবেশে যোগ দিলে কী হয়, সমাবেশ করলে কী হয়? সমাবেশ গণতান্ত্রিক অধিকার।

[৪] শিমুলিয়া ঘাটের বাণিজ্য ব্যবস্থাপক শাফায়েত আহমেদ বলেন, সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ১০ পর্যন্ত ফেরিগুলোর বেশির ভাগ মাদারীপুরের শিবচর ঘাট এলাকায় ছিল। এপারে যে কয়েকটি ফেরি ছিল, তাও পরিপূর্ণ ছিল। এ কারণে বহরের গাড়িগুলো যেতে পারেনি। প্রথম আলো

[৫] তিনি বলেন, এই রুটে ১৩টি ফেরি চলাচল করে। এর মধ্যে ৮৯টি ওপারে ছিল। এপারে থাকা বাকিগুলোতে গাড়িপূর্ণ হয়ে গিয়েছিল। এ ধরনের ঘটনা আগে ঘটেছে কি না, কখনো কখনো হয়। ফেরি সব ‘ওয়ান সাইডেড’ হয়ে যায়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত