প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিধিনিষেধ শীতল হওয়ায় প্রতিদিন আসছে ভ্রমণ পিপাসু পর্যটকরা

বাবুল খাঁন: [২] বান্দরবান পার্বত্য জেলায় পর্যটন স্পটগুলো এখন খোলা রয়েছে। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারী সরকারি ছুটিতে পর্যটকদের সমাগম বাড়বে বলে জানান পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা

[৩] সরেজমিনে পর্যটন স্পটগুলোতে পরির্দশন করে দেখা যায় মেঘলা, নীলাচলজেলা প্রশাসন পরিচালিত, শৈলপ্রপাত চিম্বুক, সেনাবাহিনী পরিচালিত নীলগিরি, বৌদ্ধ রাম, স্বর্ণজাদিসহ পর্যটন স্পর্টগুলো পর্যটকদের ভীড় বাড়ছে।

[৪] পর্যটকদের সঙ্গে আলাপকালে তারা জানান, সরকারি বিধিনিষেধ শীতল এবং স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় অবসর সময়টি তারা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য পাহাড়ি জেলার বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানগুলো ভ্রমণ করছেন। পর্যটকরা অভিযোগ করে বলেন, বান্দরবান- কেরানীহাট সড়কে পুরোদমে চলছে সড়ক বর্ধিতকরন কাজ।

[৫] এদিকে পর্যটন মৌসুম হওয়ায় শত শত পর্যটকবাহী গাড়ি প্রতিদিন প্রবেশ করছে জেলা সদরে। ধুলোবালির কারণে এই সড়কে চলাচলকারী যাত্রীদের জনদুর্ভোগ চরমে।

[৬] হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির সভাপতি অমল কান্তি দাশ বলেন, করোনার সময়ে দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকাতে পর্যটন সংশ্লিষ্ট সকল কিছুতে মন্দাভাব দেখা দিয়েছিলো। বর্তমানে পর্যটকের সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। জেলা সদরে ৫০টির মতো হোটেল-মোটেল। ১৯ ফেব্রুয়ারি সরকারি বন্ধ থাকায় ইতোমধ্যে অধিকাংশ হোটেল-মোটেল অগ্রীম বুকিং হয়ে গেছে। আশা করি ক্ষতিগ্রস্ত পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসার মন্দাভাব কাটিয়ে উঠবে। সম্পাদনা: হ্যাপি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত