প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সেনাপ্রধানের ছেলের বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানে কোনো দন্ডপ্রাপ্ত আসামী ছিল না: আইএসপিআর

ইসমাঈল ইমু: [২] সিগন্যাল সরঞ্জাম ক্রয় নিয়ে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বা হাঙ্গেরিতে বসবাসকারী তার ভাইয়ের কোনো যোগসুত্র প্রতিষ্ঠার চেষ্টা যে সম্পূর্ণ অসৎ উদ্দেশ্য প্রণোদিত, তাতে কোন সন্দেহ নেই। শুধুমাত্র সেনাবাহিনী প্রধানের ভাইয়ের দীর্ঘ সময় ধরে হাঙ্গেরিতে বসবাসের বিষয়টিকে পুঁজি করে আল জাজিরা তথ্যচিত্র নির্মাণ করেছে। সেনাবাহিনী প্রধানের কোন ভাই বা আত্মীয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কোন ধরণের অস্ত্র, গোলাবারূদ বা সরঞ্জামাদি সরবরাহ অথবা ক্রয় প্রক্রিয়ার সাথে কখনোই সম্পৃক্ত ছিলেন না।

[৩] ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ সেনাবাহিনী প্রধানের ছেলের বিবাহোত্তর সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান হয় যেখানে বিশিষ্ট গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অথচ তার আগেই সেনাবাহিনী প্রধান এর ভাইয়েরা (আনিস এবং হাসান) তাদের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার স্বীকার হয়ে ষড়যন্ত্রমূলক, পরিকল্পিতভাবে দায়েরকৃত সাজানো ও বানোয়াট মামলা হতে যথাযথ আইনানুগ প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই অব্যাহতি পান। ওইদিন সেনাবাহিনী প্রধানের ছেলের বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানে তার কোন ভাই কোন দন্ডপ্রাপ্ত বা পলাতক আসামী অবস্থায় ছিলেন না, বরং সম্পূর্ন অব্যাহতিপ্রাপ্ত হিসেবেই তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন এবং ওই সময়ে তাদের বিরুদ্ধে আর কোনো মামলা অনিষ্পন্ন অবস্থায় বা চলমানও ছিল না।

[৪] সেনাবাহিনী প্রধান ২০১৯ সালের এপ্রিলে সরকারী সফরে সিঙ্গাপুর ভ্রমণ শেষে ব্যক্তিগত সফরে মালয়েশিয়া তার বড় ভাইয়ের বাসায় অবস্থান করেন। প্রতিবেদনে দেখানো সেনাবাহিনী প্রধানের তার প্রবাসী ভাইয়ের সাথে বিবাহ অনুষ্ঠানে এবং মালয়েশিয়াতে সাক্ষাত এর ঘটনাকে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে পলাতক আসামীর সাথে সাক্ষাত হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে যা অপপ্রচার মাত্র।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত