প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] উৎসবের আমেজে টিকা নিচ্ছেন রাজধানীবাসী [২] স্বজন ও বন্ধুবান্ধবকেও উৎসাহিত করছেন 

শাহীন খন্দকার: [৩] সোমবার মোহাম্মদপুরের আওরঙ্গজেব রোডের ফার্টিলিটি সার্ভিসেস অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টার ও ১০০ শয্যার মা ও শিশু হাসপাতাল, শেরে বাংলা নগর  শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, নিটোর, চক্ষু ইনস্টিটিউট, শ্যামলী টিবি ও শিশু হাসপাতাল ঘুরে  টিকাদান কেন্দ্রে দীর্ঘলাইন দেখা যায়।

[৪] মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা বাসন্তী সাহা জানালেন, খুবই সুন্দর পরিবেশে টিকা দিয়েছি। দেশের সকলের এই টিকা নেওয়া উচিত।

[৫] তিনি ও তার স্বামী সুরক্ষা অ্যাপসের মাধ্যমে নিবন্ধন করেছেন। সেই সঙ্গে আত্মীয়স্বজনদের উৎসাহিত করেছেন। কারণ প্রথম দিকে মানুষের মধ্যে  টিকা নিয়ে নানা গুঞ্জন ছিলো। বাসন্তী বলেন, বাসায় গিয়ে ফেসবুকেও একটি স্ট্যাটাস দেবো টিকা নেওয়ার জন্য সবাইকে আহ্বান জানিয়ে।

[৬] ফার্টিলিটি সার্ভিসেস অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারের পরিচালক ডা. মুনিরুজ্জামান সিদ্দিকী জানান, প্রতিদিন ৪৫০ থেকে ৫শ জন টিকা নিচ্ছেন। ম্যাসেজ যারা দেখাতে পারছেন তাদেরসহ এই কেন্দ্রে যারা নিবন্ধন করেছেন তাদেরকেই টিকা দেওয়া হচ্ছে।

[৭] টিবি হাসপাতালে নিবন্ধন ৮ হাজার, সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিবন্ধন হয়েছে ১৯ হাজার এর উপরে, নিটোরে ৪ হাজার ৩২ জনের, শিশু হাসপাতালে ৮ হাজার। চক্ষু ও বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটে ১০ হাজার ২০০ জন টিকা নিতে পারবেন। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত