প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তদন্তের স্বচ্ছতা দাবি করলো যুক্তরাষ্ট্র
[১] ২০১৯ সালেই উহানে ধারণার চেয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছিলো করোনাভাইরাস, ছিলো এক ডজনের বেশি ভ্যারিয়েন্ট: হু এর তদন্ত দল

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] চীনা শহরটির হাজার হাজার অধিবাসীর রক্তের নমুনা পরীক্ষা করে এই সিদ্ধান্তে আসা হয়েছে। এই মিশনের প্রধান তদন্তকারী পিটার বেন এমবার্ক অজস্র সাক্ষাৎকার নেওয়ার কথা জানিয়েছেন। তিনি বলছেন ২০১৯ এর ডিসেম্বরেই ধারণার চেয়ে অনেক বেশি উহানবাসী কোভিড-১৯ উপসর্গে ভুগছিলো। সিএনএন

[৪] এমবার্ক জানিয়েছেন, তাদের গতি কম মনে হলেও, আসলে তারা অনেক তথ্য সংগ্রহ করে ফেলেছেন। সবচেয়ে বড় তথা, ডিসেম্বরেই ভাইরাসটি উহানে বড় পরিসরে ঘুরে বেড়াচ্ছিলো। কিন্তু কেউ এই ব্যাপারে আসলে গুরুত্বই দেয়নি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই বিজ্ঞানি জানান, ডিসেম্বরে শহরটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে ১৭৪জন রোগি ছিলেন। যা আসল সংখ্যার আশেপাশেও নয়। আসলে সেসময় শহরটিকে করোনাক্রান্তের সংখ্যা হাজারেরও বেশি ছিলো।

[৫] এই মিশনে অংশ নিচ্ছেন হু এর ১৭ আর চীনের ১৭ বিজ্ঞানী। তারা বলছেন, সেসময় উহানে ১৩টি আলাদা স্ট্রেইনের থাকার প্রমাণ পেয়েছেন তারা। এ থেকেই বোঝা যায়, সেসময়েই রোগটি ভয়ঙ্কর হতে শুরু করেছিলো।

[৬]এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সুলিভান বলেছেন, চীনকে এই ব্যাপারে তথ্য উন্মুক্ত করতেই হবে। তিনি অভিযোগ করেন, অতিমহামারি শুরুর পর থেকেই চীনারা বিষয়টিকে গুরুত্ব দিচ্ছে না। যা হতে পারে মারাত্মক।

সর্বাধিক পঠিত