প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চতুর্থ দফায় ভাসানচর যাচ্ছেন আরও ৪ হাজার রোহিঙ্গা

সমীরণ রায়, কায়সার হামিদ: [২] তাদের পরিবহনে ৭২টা বাস, একাধিক ট্রাক, জাহাজ ও প্রয়োজনীয় যানবাহন প্রস্তুত। তৃতীয় দফায় ভাসানচরে যাওয়ার ১৫দিনের মাথায় অন্তত সাড়ে ৪ হাজার রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে পৌঁছে দেওয়া হবে। তাদের বাসে করে চট্টগ্রামে নেওয়া হবে। পরে চট্টগ্রাম থেকে জাহাজে করে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হবে।

[৩] ইতোমধ্যে ৬০০জনকে নিয়ে আসা হয়েছে ট্রানজিট পয়েন্ট উখিয়া ডিগ্রি কলেজ মাঠে। কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফে আশ্রয়ে থাকা রোহিঙ্গাদের শনিবার বিকেল থেকে ৩৪টি ক্যাম্প থেকে ভাসানচরে নিয়ে যেতে উখিয়া কলেজ মাঠে অস্থায়ী ট্রানজিট পয়েন্টে আসতে শুরু করে। বাকিরা রোববার দুপুরে ও বিকেলে ট্রানজিট পয়েন্ট থেকে নিয়ে যাওয়া হবে চট্টগ্রামে। সোমবার যারা ভাসানচরের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন তারা আজ সন্ধ্যা ও সোমবার সকাল-দুপুরে ট্রানজিট পয়েন্ট আসবেন।

[৪] নিবন্ধিত ও অনিবন্ধিত ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতারা বলেন, আগে ভাসানচরে যাওয়াদের জীবনচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখে এখন অনেকে আগ্রহী হয়েছে। রোহিঙ্গারা ভাসানচরে যেতে নিজেরাই এখন তালিকায় নাম লিখিয়েছে।

[৫] ভাসানচরে যেতে আগ্রহীরা জানান, ভাসানচরে অবস্থান রোহিঙ্গাদের মুখে সেখানকার বর্ণনা শুনে আমরাও যেতে চাই। পাহাড়ের ঘিঞ্জি বস্তিতে বসবাসের চেয়ে ভাসানচর অনেক নিরাপদ হবে।

[৬] উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মাঝি মো. ইউছুপ বলেন, আমার ব্লক থেকে বেশ কয়েকটি পরিবার ভাসানচরে যাচ্ছে। তাদের কাউকে জোর করা হয়নি।

[৭] কুতুপালং লম্বাশিয়া ক্যাম্পের মাঝি আবদুর রহিম বলেন, এ ক্যাম্প থেকেও ১৫টি পরিবার ভাসানচরে যাচ্ছে। আগে যারা গেছে, তাদের কাছ থেকে সুবিধার খবর জেনেই তারা যেতে আগ্রহী হয়েছে।

[৮] উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, ভাসানচরের পথে চট্টগ্রাম থেকে চূড়ান্তভাবে জাহাজে না উঠা পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের যাত্রা নিয়ে সঠিক সংখ্যা বলা মুশকিল।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত