প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হাঙ্গেরিতে রাশিয়ার তৈরি করোনা ভ্যাকিসন দেওয়া শুরু

ডেস্ক রিপোর্ট : ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রথম সদস্য রাষ্ট্র হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে রাশিয়ার তৈরি করোনা ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি এর প্রয়োগ শুরু করলো পূর্ব ইউরোপের দেশ হাঙ্গেরি। শুক্রবার দেশটির চিফ মেডিকেল অফিসার স্থানীয় গণমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

প্রাথমিক অবস্থায় রাশিয়ার গামালেয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিওলোজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলোজির পক্ষ থেকে ২৮০০ ডোজের করোনার টিকার প্রথম চালান পূর্ব ইউরোপের এ দেশটিতে পাঠানো হয়, যার ধারবাহিকতায় দেশটি এ ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম শুরু করে।

ইউরোপে আগে বেলারুশ, সার্বিয়া এবং বসনিয়া অ্যান্ড হার্জেগোভিনাতে রাশিয়ার তৈরি করোনা ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভির প্রয়োগ শুরু হয়েছে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রথম দেশ হিসেবে এবার হাঙ্গেরিতেও এ টিকার প্রয়োগ শুরু হলো।

অন্যদিকে এই বিষয়টিকে স্বাভাবিকভাবে দেখছে না ইইউভুক্ত অন্যান্য দেশগুলো। বিশেষত রাশিয়াতে বিরোধী দলীয় নেতা আলেক্সেই নাভালনির গ্রেপ্তারকে কেন্দ্র করে ক্রমশ পুতিন প্রশাসনের সঙ্গে ব্রাসেলসের দূরত্ব তৈরি হয়েছে। রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির পক্ষে বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার অভিযোগ তুলে গত সপ্তাহে জার্মানি, সুইডেন এবং পোল্যান্ডের তিন কূটনীতিককে বহিষ্কার করে মস্কো, যার পাল্টা প্রতিবাদ হিসেবে ইইউর এ তিন দেশের পক্ষ থেকেও তাদের দেশে অবস্থান করা রুশ কূটনৈতিককে বহিষ্কার করা হয়।

তবে হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ওরবান ভিক্টর এক রেডিও সাক্ষাৎকারে বলেছেন, শুধুমাত্র ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের ওপর নির্ভর করে বসে থাকলে আমরা আমাদের দেশের জনগণকে কাঙ্খিত নিরাপত্তা দিতে পারবো না। ইউরোপিয়ান মেডিসিন্স অ্যাসোসিয়েশন কবে কোন ভ্যাকসিনের ওপর তাদের সিদ্ধান্ত জানাবে সে আশায় দিন গুনলে আমাদের চোখের সামনে একশোরও অধিক মানুষের মৃত্যু দেখতে হবে, যা আমরা কখনও মেনে নিতে পারি না।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দেশের যে কোনও অভ্যন্তরীণ বিষয়ে অবশ্যই ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন আমাদের চেয়ে বেশি জ্ঞান রাখে না।

চিকিৎসা বিষয়ক ব্রিটিশ সাময়িকী দ্যা ল্যানসেটে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী রাশিয়ার তৈরি করোনা ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি করোনা প্রতিরোধে শতকরা ৯১.৬ ভাগ কার্যকরী। এটি মূলত একটি ভাইরাল ভেক্টর নির্ভর ভ্যাকসিন, সাধারণ রেফ্রিজারেটরের তাপমাত্রায় অর্থাৎ ৩৫.৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট থেকে ৪৬.৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রায় ছয় মাস এ ভ্যাকসিন সংরক্ষণ করা যায়। প্রতি ডোজ স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিনের দাম সাড়ে সাত ইউরো।

স্পুটনিক ভির পাশাপাশি চীনের ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সিনোফার্মের তৈরি করোনা ভ্যাকসিনকেও জরুরিভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে দেশটির ন্যাশনাল পাবলিক হেলথ সেন্টার।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী ওরবান ভিক্টর জানিয়েছেন, ইস্টার উৎসবের আগে আমরা আমাদের দেশে বসবাসরত এক চতুর্থাংশ জনগণকে টিকার আওতায় আনতে চাই। – সমকাল

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত