প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনা অস্বীকার করে আসা রাষ্ট্র তানজানিয়ার ভ্যাকসিন নিয়েও নেই পরিকল্পনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গত কয়েক মাস ধরে তানজানিয়ার সরকার দাবি করে যাচ্ছে দেশে কোনো কোভিড-১৯ নেই। তাই কোনো ধরণের ভ্যাকসিন কার্যক্রমেরও পরিকল্পনা নেই দেশটির। দেশটির একটি পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছে বিবিসির ডিকেনস ওলেয়ই। তাদের পরিবারের দুই সদস্য সম্প্রতি করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন। দেশটি জুড়েই এমন ভয় রয়েছে যে, সরকার অস্বীকার করে গেলেও পুরো দেশেই ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস।

তানজানিয়ার সরকার সর্বশেষ কয়েক মাস ধরে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা প্রকাশ করছে না। এরইমধ্যে দেশটি নিজেকে করোনামুক্ত ঘোষণা করেছে। পূর্ব আফ্রিকার দেশটিতে টেস্ট হয় না এবং ভ্যাকসিন প্রদানেরও কোনো পরিকল্পনা নেই। সেখানে খুব অল্প কিছু মানুষই করোনা নিয়ে কথা বলতে পারেন।

দেশটির অনেক মানুষই মনে করেন তাদের করোনা হয়েছে। অনেক পরিবারেরই সকল সদস্যের মধ্যে উপসর্গ দেখা গেছে। তবে সরকারের ভয়ে তারা প্রকাশ্যে এ নিয়ে কথা বলতে চান না। তানজানিয়া থেকে বৃটেনে প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছে দেশটির সরকার। যুক্তরাষ্ট্রও তার নাগরিকদের তানজানিয়া সফরে সতর্কতা জারি করেছে।

গত জুন মাসে দেশকে করোনামুক্ত ঘোষণা করেন তানজানিয়ার প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলি। তিনিসহ দেশের অন্য সরকারি কর্মকর্তাদের প্রায়ই দেখা যায়, মাস্ক পরা নিয়ে মজা করছেন। তারা সন্দেহ প্রকাশ করেন টেস্টিং কার্যক্রম নিয়ে। আসেপাশের যেসব দেশ করোনা নিয়ন্ত্রণে নানা ব্যবস্থা নিচ্ছে তাদের নিয়েও মজা করেন তারা। করোনা ভ্যাকসিন নিয়েও নানা তাচ্ছিল্য করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট। সম্প্রতি তিনি বলেন, তার দেশের মানুষের ভ্যাকসিন নেয়া উচিৎ নয় কারণ তারা ‘গিনি পিগ’ হতে চায় না।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আফ্রিকা অংশের পরিচালক ড. মাতশিদিশো মোয়েতি বলেন, ভ্যাকসিন কাজ করে এবং তানজানিয়া সরকারকে বলতে চাই ভ্যাকসিন কার্যক্রমের প্রস্তুতি নিন। তবে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী দোরোথি গাজিমা ভ্যাকসিন কার্যক্রমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন।

জানুয়ারি মাসে তানজানিয়া থেকে ফেরা দুই নাগরিকের মধ্যে করোনার সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়ান্ট সনাক্ত করে ডেনমার্ক। এরপর প্রেসিডেন্ট মাগুফুলি বিদেশে যাওয়া তানজানিয়ানদের সমালোচনা করে বলেন, তারা অদ্ভুত এক করোনা নিয়ে দেশে ফিরে আসছেন।- মানবজমিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত