প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গাজীপুরে স্কুল শিক্ষার্থীকে দলবদ্ধধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ, গ্রেপ্তার ৩

গাজীপুর প্রতিনিধি : [২] জেলার কালিয়াকৈরে মোবাইল ফোনের ছবি নেওয়ার জন্য ডেকে ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুল শিক্ষার্থীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

[৩] এ ঘটনায় ভিকটিম স্কুল শিক্ষার্থীর বাবা শুক্রবার রাতে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পরে অভিযুক্ত তিন ধর্ষককে গ্রেপ্তারের করেছে পুলিশ। শনিবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে তাদের গাজীপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

[৪] গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, কালিয়াকৈর উপজেলার কাথাচুড়া এলাকার আঃ সবুরের ছেলে শরিফ (২৮), একই এলাকার রামচন্দ্রপুর এলাকার ইব্রাহিম খলিলের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (২২) এবং কড়ইতলী এলাকার আঃ করিমের ছেলে রুবেল হাসান (২১)।

[৫] ভিকটিমের পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বখাটে শরিফ মোবাইলে ফোনে কল করে জানায় তার কাছে ভিকটিমের ছবি রয়েছে। ওই ছবি নিতে পাশর্^বর্তী গ্রামে সিরাজপুরে আসতে বলে অন্যথায় ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়া হুমকি দেয়। পরে ইন্টারনেটে ছবি যাওয়ার ভয়ে বাধ্য হয়ে ভিকটিম ওই গ্রামের দিকে যাচ্ছি। পথি মধ্যে ডিপেরচালা এলাকায় পৌছলে পূর্বে থেকে উৎপেতে থাকা শরিফ, রাশেদুল ও রুবেল ভিকটিমকে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক পাশের কাঠ বাগানের ভেতর নিয়ে যায়।

[৬] পরে তারা বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিে ওই স্কুলছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের দৃশ্য মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে। এক পর্যায়ে ভিকটিম স্কুলছাত্রীকে ওই কাঠ বাগানের নির্জস্থানে ফেলে রেখে তারা পালিয়ে যায়। এরপর ওই স্কুলছাত্রী বাড়িতে ফিরে পরিবারকে বিষয়টি জানালে তারা ফুলবাড়িয়া পুলিশে ক্যাম্পে গিয়ে ঘটনাটি জানায়।

[৭] কালিয়াকৈর থানার ওসি মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর শুক্রবার দুপুরে কয়েকটি স্থানে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত তিন ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ধর্ষণের দৃশ্য ভিডিওসহ মোবাইল ফোনটি জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের গাজীপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

 

সর্বাধিক পঠিত