প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মেধাবী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঠিকমতো ফিডব্যাক দিলে সফলতা আসবে বললেন সুজন

রাজু চৌধুরী : চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বিদায়ী প্রশাসক বলেছেন, নিজের মনের মলিনতা ও কালিমা মুছতে পারলে সমাজ, প্রকৃতি, রাষ্ট্র ও সরকার উপকৃত হবে।

শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) আন্দরকিল্লাস্থ সিটি কর্পোরেশনের পুরাতন কার্যালয়ে কেবি আবদুস সাত্তার মিলনায়তনে চসিক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেওয়া বিদায় অনুষ্ঠানে খোরশেদ আলম সুজন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ১৮০ দিনের অভিজ্ঞতায় ভালোকে গ্রহণ করেছি-মন্দকে পরিহার করেছি। সাধ্যমত চেষ্টা করেছি। ছাত্রজীবনে রাজনীতির হাতেখড়ি নিয়ে রাজপথ আমার ঠিকানা এবং সেখান থেকেই বন্দরনগরী চট্টগ্রাম নিয়ে আমার স্বপ্ন দেখা। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে আমার ১৮০ দিনের প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালনের যে পরিবর্তন তার প্রধান কারিগর চসিকের সৎ ও নিষ্ঠাবান কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। আমি সাধুবাদ জানাই তাদের। সুজন আরও বলেন, চসিক এ মেধাবী  কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঠিকমতো ফিডব্যাক দিলে অনেক সফলতা আসবে এবং  উন্নয়ন সাধিত হবে।

তিনি বলেন, চসিকের শিক্ষাখাত নিয়ে অনেক চিন্তা-ভাবনা করতে হবে। ভর্তুকির ভার কমাতে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত শিক্ষা খাত রেখে বাড়তি বোঝা ছেড়ে দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা প্রয়োজন। দীর্ঘদিন চাকরি করে অবসর নেওয়ার পর আনুতোষিক পায়নি, আমি দায়িত্ব নিয়ে ইতোমধ্যে কিছু আনুতোষিক পাওনা পরিশোধ করেছি এবং এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলেই আমার বিশ্বাস।

চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমেদ, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, উপ-সচিব আশেক রসুল চৌধুরী টিপু, অতিরিক্ত প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ন কবির চৌধুরী, নির্বাহী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মীর্জা ফজলুল কাদের, কুলগাঁও কলেজের অধ্যক্ষ আমিনুল হক খান, কাট্টলী স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম, সার্কেল-৫ এর টিও একেএম সালাউদ্দীন, ইউএনডিপির টাউন ম্যানেজার মো. সরোয়ার হোসেন খান, অতিরিক্ত প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোর্শেদুল আলম চৌধুরী, চসিক সিবিএ নেতা ফরিদ আহমেদ, মুজিবুর রহমান প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত