প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কানাডার সরকারের দৃষ্টিতে ট্রাম্প রিপাবলিকান দলের নেতা থাকলেও গোপনে ছিলেন প্রাউড বয়েজ সন্ত্রাসী সংগঠনের পৃষ্ঠপোষক

দেবদুলাল মুন্না:[২] গতকাল ৩ ফেব্রুয়ারি কানাডা সরকার এক ঘোষণায় বলে, ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসির ক্যাপিটল হিলে ধ্বংসাত্মক কাজে প্রাউড বয়েজ মূল ভূমিকা রেখেছে। বিশ্বের কোনো দেশ প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের শ্বেতাঙ্গ উগ্রবাদীদের এই সংগঠনকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল। যুক্তরাষ্ট্রে জেগে ওঠা শ্বেতাঙ্গ উগ্রবাদীদের প্ল্যাটফর্ম হিসেবে প্রাউড বয়েজ সংগঠনের সদস্যদের ওপর নজরদারি শুরু হয়েছে। খবর পলিটিকো ও টরেন্টোটাইমস।

[৩] কানাডার জননিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রী বিল ব্লেয়ার বলেছেন, কানাডা সরকার নিজেরাই প্রাউড বয়েজ সম্পর্কে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেছে। অনলাইন তথ্যসহ সহিংসতা-উগ্রবাদ নিয়ে প্রাউড বয়েজের কার্যক্রম সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য নেওয়া হয়েছে বলে জানান বিল ব্লেয়ার।

[৪] গত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় থেকে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে শ্বেতাঙ্গ চরমপন্থী ও উগ্রবাদীদের সহিংস কর্মকাণ্ডে প্রাউড বয়েজ মুখ্য ভূমিকা পালন করে কুখ্যাতি কুড়ায়। প্রাউড বয়েজের সদস্যরা ড্রাগ এডিক্টেড ও ধর্মীয়ভাবে ভীষণ অন্ধ । তারা মনে করে খ্রিস্টানদের মধ্যে শেতাঙ্গরাই সেরা। কালোরা পাপের ফসল। এ সংগঠনটি মনে করে ডেনাল্ড ট্রাম্প ছিলেন তাদের ত্রাণকর্তা। বাইডেনের মতো গণতান্ত্রিক মনস্করা প্রশাসনে এলে পাপাচার বৃদ্ধি পাবে। সমকামিতা, অবাধ যৌনতা গর্ভপাত এসব বাড়বে।

[৫] গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে হামলা করেন ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকেরা। ক্যাপিটল হিলে সহিংসতার সর্বাগ্রে ছিল প্রাউড বয়েজ সংগঠনের লোকজন। যুক্তরাষ্ট্রে এখন অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসীদের নিয়ে বেশি উদ্বিগ্ন।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত