প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শেরপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩০ হাজার ২শ ৭৩ শিশু ঝরে পড়েছে

তপু সরকার : [২] এরমধ্যে ২১৫ জন শিশু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির বাইরে রয়েছে। প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ঝরে পড়া ৮-১৪ বছর বয়সী শিশুদের আবারো পড়ালেখায় ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তাদেরকে ‘আউট অব স্কুল চিল্ড্রেন’ কার্যক্রমের আওতায় পঞ্চম শ্রেণি পাশের পর দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আত্মকর্মী হিসেবে গড়ে তোলার পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার।

[৩] আগামী ৩ বছরে ঝরে পড়া ৪ হাজার ২০০ শিশুকে ‘আউট অব স্কুল চিল্ড্রেন’ র্কসূচির আওতায় এনে পড়ালেখার সুযোগ সৃষ্টি করা হবে।

[৪] মঙ্গলবার ‘আউট অব স্কুল চিল্ড্রেন’ শনাক্তকরণ কার্যক্রমের জেলা পর্যায়ের এক অবহিতকরণ সভায় এমন তথ্য জানানো হয়। ৪র্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ণ কর্মসূচির (পিইডিপি-৪) আওতায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট আয়োজিত এ অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব।

[৫] অনলাইনে জুম ক্লাউডে ভার্চূয়ালি অনুষ্ঠিত এ সভায় জেলা পর্যায়ের সরকারি-সেবরকারি কর্মকর্তা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিশেষজ্ঞ, স্থানীয় স্টেকহোল্ডার, সাংবাদিক, শিক্ষা কর্মকর্তা, বাস্তবায়নকারি সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ সংযুক্ত হন।

[৬] মূলপ্রবন্ধে বলা হয়, ২০২০ সালের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের শিক্ষাজরিপ অনুসারে জেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয় গমনোপযোগী শিশুর সংখ্যা ২ লাখ ২ হাজার ৯২৯ জন।

[৭] অর্থাৎ জেলায় ঝরে পড়া শিশুর সংখ্যা ৩০ হাজার ২৭৩ জন। ঝড়ে পড়া এসব শিশু জড়িয়ে পড়েছে শিশুশ্রমে। অনেকেই শিকার হয়েছে বাল্যবিয়ের।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত