প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের স্বাক্ষর জাল করে ভর্তির সুপারিশ, যুবকের কারাদণ্ড

রাজু চৌধুরী : [২] চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের স্বাক্ষর জাল করে প্রতারণার দায়ে এক যুবককে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

[৩] মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ উমর ফারুকের নেতৃত্বে কোর্ট বিল্ডিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে এক প্রতারককে জেলা প্রশাসক স্বাক্ষর জালিয়াতি করা ও প্রতারণার ফাঁদে ফেলে স্কুলে ভর্তি করাতে দশ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় জামাল উদ্দিন নামের এক ব্যক্তিকে ১৫ (পনের) দিনের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

[৪] জামাল উদ্দিন নামের ওই যুবক জামাল ডবলমুরিং থানার মুগলটুলী এলাকার বাসিন্দা।

[৫] জানা যায়, ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া ছেলেকে নগরের সরকারি মুসলিম হাই স্কুলে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার কথা বলে মর্জিনা আক্তার নামে এক নারী ৫০ হাজার টাকায় চুক্তি করেন জামাল উদ্দিন।

[৬] তার অপর সহযোগি কোতোয়ালী থানার আলকরণ এলাকার মোজাম্মেল হোসেন নামে এক ব্যক্তি ভর্তির সুপারিশ পত্রে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের স্বাক্ষর জাল করে মর্জিনা আক্তারের বাবাকে দেন। স্কুল কর্তৃপক্ষ তাতে তারিখের ভুল থাকায় মর্জিনা আক্তারকে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে যোগাযোগের পরামর্শ দেন। মর্জিনা আক্তার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এলে ডিসির স্বাক্ষর জাল করে তার সঙ্গে প্রতারণার বিষয়টি ধরা পড়ে।

[৭] কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক জানান, জিজ্ঞাসাবাদে মর্জিনা আক্তার জানিয়েছেন- জামাল উদ্দিনের সঙ্গে ৫০ হাজার টাকায় এ বিষয়ে তার চুক্তি হয়। এরমধ্যে ১৬ হাজার টাকা তিনি জামাল উদ্দিন এবং মোজাম্মেল হোসেনকে দিয়েছেন।

[৭] ম্যাজিস্ট্রেট জানান, ডিসি স্যারের স্বাক্ষর জাল করে প্রতারণার বিষয়টি হাতেনাতে ধরা পড়ায় জামাল উদ্দিনকে ১৫ দিনের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ভবিষ্যতে করবেনা মর্মে মুচলেকা নেওয়া হয়।

[৮] অন্যদিকে কোতোয়ালি থানাধীন ২৯ নং আলকরণের আরেক প্রতারক মোজাম্মেল হোসেন (৪০) একই ভুক্তভোগীর কাছ থেকে ভর্তি সংক্রান্ত বিষয়ে ভিন্ন কৌশলে ৬০০০ টাকা নেন।

[৯] তিনি নিজেকে ২৫তম বিসিএস এর পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয় দেন। পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলার নির্দেশনা দেয়া হয়।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত