প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পোস্টার-ব্যানারে ছেয়ে গেছে হোসেনপুর পৌর এলাকা

আশরাফ আহমেদ: [২] কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর পৌরসভায় তৃতীয় বারের মতো অনুষ্ঠেয় আসন্ন নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ জন, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ১২ জন ও সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ৩০ জন প্রার্থী অংশগ্রহণ করছেন। ইতিমধ্যে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই, প্রত্যাহার, প্রতীক বরাদ্দ শেষে গণসংযোগ আর তুমুল প্রচারণায় পৌর সদর ও পাড়া-মহল্লায় উত্তাপ ছড়িয়েছে। ব্যানারে পোস্টারে সয়লাব পৌর শহরের অলিগলি, পাড়া-মহল্লা। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বসতবাড়িতেও এখন আলোচনার কেন্দ্রে পৌরসভা নির্বাচন।

[৩] আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী ভোট গ্রহণ হবে এই পৌরসভায়। প্রার্থীরা প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি নিয়ে ভোট চেয়ে চষে বেড়াচ্ছেন তাদের নির্বাচনী এলাকা। পৌরসভার এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা আওয়ামীলীগ মনোনীত বর্তমান মেয়র আব্দুল কাইয়ুম খোকন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সৈয়দ হোসেন হাছু ও বিএনপি’র সাবেক মেয়রমো. মাহবুবুর রহমান মধ্যে হবে বলে ভোটারদের অভিমত।

[৪] এদের মধ্যে ক্ষমতাসীন দলের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মেয়র আব্দুল কাইয়ুম খোকন ও নারিকেল গাছ মার্কা বিদ্রোহী প্রার্থী সৈয়দ হোসেন হাসু পক্ষে তার কর্মী-সমর্থক ও দলীয় নেতাকর্মীদের প্রচার-প্রচারণায় মুখর গোটা পৌর শহর। প্রচারণায় পিছিয়ে নেই বিএনপিপ্রার্থীও সাবেক মেয়রমাহবুবুর রহমান। পৌরসভা প্রতিষ্ঠার পর প্রথম নির্বাচনে বিএনপি’রমাহবুবুর রহমান নির্বাচিত হন।

[৫] নির্বাচন ঘনিয়ে আসায় দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে বিরামহীনপ্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন মেয়র ও কাউন্সিলরপ্রার্থীরা। শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় মুখর পৌর এলাকায় যেনোউৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। দিনব্যাপী ভোটারের ঘরে ঘরে গণসংযোগ শেষে রাতে বিভিন্ন ওয়ার্ডে নির্বাচনী উঠান বৈঠকে অংশ নিচ্ছেন মেয়র প্রার্থীরা। এলাকার উন্নয়নে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। ভোটাররাও তাদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া তুলে ধরছেন। ২০০৬ সালে উপজেলা সদরকে পৌরসভায় রূপান্তর করা হয়। উপজেলা সদরের ৬.৫ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এ পৌরসভায় বর্তমান ভোটার ২০হাজার ৩৭৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১০ হাজার ২০০, নারী ১০ হাজার ১৭৯

[৬] সহকারী রিটার্নিং ও হোসেনপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শরীফা আক্তার জানান, নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা এই পৌরসভায় ভোটগ্রহণ হবে। নির্বাচন নিয়ে পুরোপুরি প্রস্তুতি চলছে। সম্পাদনা: সাদেক আলী

 

সর্বাধিক পঠিত