প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিল পাস

মনিরুল ইসলাম: [২] প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে খুলনায় মেডিকেল বিশ্ববদ্যিালয় স্থাপনের লক্ষ্যে জাতীয় সংসদে উত্থাপিত বিলটি পাস হয়েছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সুপারিশকৃত আকারে বিলটি সর্বসম্মতিক্রমে কন্ঠ ভোটে পাস হয়। । অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এ সময় সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে উপস্থিত ছিলেন।

[৩] সংসদে বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক। বিল পাসের আগে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার জনগনের স্বাস্থ্য সেবা এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে।
তিনি জানান, সারাদেশের মানুষের যেন হেলথ ডাটা থাকতে পারে তার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসা সুরক্ষা আইন আনা হবে। যাতে চিকিৎসা সুরক্ষা নিশ্চিত হয়।

[৪] এ বিলের ওপর জনমত যাচাই ও বাছাই বিরোধী দলীয় সদস্য আনীত প্রস্তাবগুলো কন্ঠ ভোটে নাকচ হয়ে যায়। তবে বিরোধী দলীয় সদস্যরা দফাওয়ারি সংশোধনী আনীত প্রস্তাবগুলোর মধ্যে বিএনপির সংসদ সদস্য ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা ও জাতীয় পার্টির সদস্য ফখরুল ইমাম ও পীর ফজলুর রহমানের আনীত ১ টি করে সংশোধনী গৃহীত হয়।

[৫] গত মঙ্গলবার সংসদীয় কমিটির সভাপতি শেখ ফজলুল করিম সেলিম বিলটি পাসের সুপারিশ করে সংসদে প্রতিবেদন জমা দেন। এরআগে গত ১৯ জানুয়ারি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক ‘শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় খুলনা বিল-২০২১’ সংসদে উত্থাপন করেন। পরে বিলটি অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

[৬] বিলটি সম্পর্কে সংসদকে জানানো হয়, অন্যান্য মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নতুন এই আইন করা হচ্ছে। খসড়া আইনে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, এখতিয়ার ও ক্ষমতার বিষয়ে বর্ণনা করা হয়েছে। এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হলে দেশে এ ধরনের প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা হবে পাঁচটি। নতুন বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হলে খুলনা অঞ্চলের মধ্যে যত মেডিকেল কলেজ, নার্সিং ইনস্টিটিউট বা চিকিৎসা সংক্রান্ত অন্যান্য যেসব ইনস্টিটিউট আছে, সবই খুলনা শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে চলে আসবে। বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশে চিকিৎসা শাস্ত্রের মানোন্নয়নে উচ্চশিক্ষা, গবেষণা এবং আধুনিক জ্ঞান চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারণের লক্ষ্যে এই বিশ্ববিদ্যালয়টি স্থাপন করা অতি প্রয়োজনীয় ও যুক্তিযুক্ত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত