প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মানবিকতার ফেরি করা দেশগুলো মানবিক কাজের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে যাচ্ছে

শওগাত আলী সাগর: পৃথিবীর কোনো দেশেই সরকার বা সরকারি কোনো প্রতিষ্ঠান টিকা উৎপাদন করছে না। টিকা উৎপাদন করছে বিভিন্ন কোম্পানি। সরকারের দায়িত্ব সেই টিকা নিজ দেশে ব্যবহারের অনুমতি দেয়া বা না দেয়া।

কোনো কোম্পানি কোন দেশে টিকা পাঠাবে, কোন দেশে পাঠাতে পারবে না- সেটি সরকারের দায়িত্বে মধ্যে পড়ে না। সরকার যখন কোম্পানির বিতরণ ব্যবস্থায় হাত দেয় সেটি, তখন ব্যবসা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে পড়ে যায়। প্রোটেকশনিজম এখন আর কোনো দেশেরই ব্যবসার নীতি না।

টিকা কার্যকর হবে কীনা – সেই ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়ার আগেই বিভিন্ন দেশ মোটা অংকের আগাম বিনিয়োগ করে নিজ নিজ প্রয়োজনমতো টিকার ক্রয়াদেশ দিয়েছে। টিকা কার্যকর না হলে এই বিনিয়োগ ফেরত পাওয়া যাবে না- এমন কঠিন শর্তেই তারা টিকার জন্য বিনিয়োগ করেছে।

ফলে টিকা উৎপাদনের পর সেই দেশগুলো তাদের ক্রয়াদেশ দেয়া টিকা পাওয়ার অধিকার রাখে। ইইউ, ভারত, চীন বা আমেরিকার জো বাইডেন যখন নিজ নিজ দেশের কোম্পানিকে তাদের ক্রেতাদের পণ্য সরবরাহের প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করেন, সেটি তখন ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ হয়ে দাড়ায়। এই নিয়ন্ত্রণটা সম্পূর্ণ অনৈতিক।

চীনের একটি টিকা ট্রায়াল এবং নিজ দেশে উৎপাদনের চুক্তি করেছিলো কানাডা। কিন্তু শেষ মুহুর্তে চীনের ‘শুল্ক বিভাগ’ সেই টিকার রপ্তাণি আটকে দেয়। সেটি নিয়ে বাইরে কোথাও তেমন কথা হয়নি। নিজ দেশের প্রয়োজনমত টিকা না পাওয়ার আগে সেরামে উৎপাদিত টিকা বিদেশে রপ্তানি করা যাবে না- ভারত সরকারের এমন একটি শর্ত নিয়ে অবশ্য তুমুল সমালোচনা হয়েছে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত