প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নায়িকা নুসরাতের হুঙ্কার : সাহস থাকলে আমাদের ধর্ষণ করে দেখাক, ঝাঁটা আর বঁটি নিয়ে তেড়ে যাবো

ডেস্ক রিপোর্ট : অভিনেত্রী হওয়ার সঙ্গেই তৃণমূলের সাংসদ তিনি। নুসরত জাহান। তবে সোমবার মঞ্চে দাঁড়িয়েছিলেন শুধুমাত্র একজন নারী এবং টলিউডের অংশ হিসেবে।

বিজেপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় নারীদের প্রতি অনাচার নিয়ে আওয়াজ তুললেন অভিনেত্রী। কড়া ভাষায় জানিয়ে দিলেন, বাংলার মেয়েদের ভয় দেখিয়ে দমন করা সম্ভব নয়। সাম্প্রতিককালে টলিউডের দুই অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ এবং দেবলীনা দত্তের সঙ্গে বিজেপির প্রকাশ্য বিতণ্ডা প্রসঙ্গেও কথা বলেন সাংসদ-অভিনেত্রী। নুসরত বলেন, যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা, সেখানকার মেয়েরা ধর্ষণের হুমকিকে ভয় পায় না।

তাঁর কথায়, “ধর্ষণের হুমকি আমিও পাই। কিন্তু আমি বা এই মঞ্চে উপস্থিত কোনও মহিলা এ ধরনের হুমকি ভয় পায় না। সাহস থাকলে আমাদের ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করে দেখাক। বাংলার বাড়িতে বাড়িতে ঝাঁটা আছে, বঁটি আছে। কেউ আমাদের ভয় দেখালে তাঁদের ঝেঁটিয়ে বিদায় করা হবে।”

বিরোধী দলের ‘ধর্ম নিয়ে রাজনীতি’কে কটাক্ষ করে বলেন তিনি মানুষের পাশে রয়েছেন। জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে সকলে একসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। যে দল মানুষের পাশে নেই, তার জায়গা হবে না বাংলার মাটিতে।
নুসরতের গলায় তীব্র ধিক্কার, “তোমরা বাংলার সংস্কৃতি বোঝ? বোঝ না বলেই এখানকার মেয়েদের অপমান করো। কিন্তু জেনে রাখ, বাংলার মেয়েদের সম্মান তাঁদের হাতেই। তাই তোমরা কেড়ে নিতে পারবে না।”

 

 

অন্যায়ের বিরুদ্ধে সমবেত হয়ে এগিয়ে আসার বার্তা শোনা গেল নুসরতের গলায়। মানুষকে ‘চোখ-কান খোলা’ রাখার কথা বললেন তিনি। দাবি করলেন, কোনও ঝামেলা হলেই নিজের দলের মহিলা কর্মীদের এগিয়ে দেয় বিজেপি কারণ মেয়েদের সম্মান করতে জানে না তাঁরা।

মঞ্চ থেকে নেমে যাওয়ার আগে তিনি বললেন, “আজ সায়নী-দেবলীনার সঙ্গে যা হয়েছে তা যাতে আর কোনও মেয়ের সঙ্গে না হয়, সেই জন্যই এই মঞ্চে এসেছি।”

বাংলার মাটিতে কোনও মেয়ের অসম্মান হতে না দেওয়ার অঙ্গীকার নিলেন নুসরত। মানুষকে ‘সঠিক’-এর পাশে থাকতে বলে মঞ্চ ছাড়লেন সাংসদ-অভিনেত্রী।
সূত্র- আনন্দবাজার

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত