প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাঙ্গামাটিতে ৫ম জাতীয় নদী সম্মেলন

মোতাহার খান: [২] রাঙ্গামাটিতে কাপ্তাই হ্রদের পানি সম্পদ, মৎস্য সম্পদ ও অর্থনৈতিক সম্ভাবনা নিয়ে পার্বত্য রাঙামাটিতে ২ দিনব্যাপী ৫ম জাতীয় নদী সম্মেলনের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দল।

[৩] দুইদিন ব্যাপী এই সম্মেলনের প্রথমদিনে শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) দিনের শুরুতে কাপ্তাই হ্রদ পরিভ্রমণ, সন্ধ্যায় আয়োজক সংগঠন বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দলের ৫১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটির পরিচিতি সভা, শপথ বাক্য পাঠ করান প্রধান অতিথি।

[৪] সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন শনিবার (২৩ জানুয়ারি) বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য নদীগুলোসহ কাপ্তাই হ্রদের উপর বিশেষ ডকুমেন্টারি প্রদর্শনের পাশাপাশি কাপ্তাই হ্রদের পানি সম্পদ, মৎস্য সম্পদ ও অর্থনৈতিক সম্ভাবনা নিয়ে গবেষণামূলক আলোচনায় অংশ নেয় অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথিবৃন্দ ও দেশের ৩৪টি জেলা থেকে আগত ১৩০ জন নদী পরিব্রাজক দলের নদীপ্রেমি।

[৫] জাতীয় নদী সম্মেলনে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট এ কে এম মামুনুর রশিদের সভাপতিত্বে এবং নদী পরিব্রাজক দলের চেয়ারম্যান ও নদী গবেষক মনির হোসেনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- মিসেস কবির বিন আনোয়ার, জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সার্বক্ষনিক সদস্য মোঃ আলাউদ্দিন, ইসাবেলা ফাউন্ডেশন এর মূখ্য গবেষক ড. মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান খান, হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরি’র প্রাণিবিদ্যা বিভাগ ও সমন্বয়কারি অধ্যাপক ড. মোঃ মঞ্জুরুল কিবরিয়া, রিভার এন্ড ডেল্টা রিসার্চ সেন্টার এর চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এজাজসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উক্ত সম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক ইসলাম মাহমুদ ও সদস্য সচিবের দায়িত্বে ছিলেন রাঙামাটি সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর মানিক।

[৬] প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে নদীর প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে তিনি জানান, দেশের ৫১২টি নদী খনন কাজ শুরু হয়েছে যেগুলোর জন্ম বাংলাদেশে। এর মধ্যে ৯৮টি ছোট নদী রয়েছে। অদূর ভবিষ্যতে পানি রপ্তানি করার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। আমাদের পানির অনেক রিসোর্স আছে যেগুলোকে কাজে লাগাতে হবে। যদি সঠিকভাবে নদীকে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয় তাহলে একটি নদী হতে ৫৫ কোটি টাকা আয় করা সম্ভব।

[৭] আলোচনা শেষে অনুষ্ঠানের অতিথিবৃন্দকে ৭০০ নদীর নাম সম্বলিত শাল স্মারক ও বিশেষ সম্মাননা পদক তুলে দেন বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দলের নেতৃবৃন্দ। পরবর্তীতে সাংগঠনিক কর্মকান্ডে বিশেষ অবদান রাখায় নদী পরিব্রাজক দলের সদস্য ও নেতৃবৃন্দকেও বিশেষ সম্মাননা ক্রেষ্ট তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। সম্পাদনা: হ্যাপি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত