প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৩০ হাজার ডলারে নেমে গেছে বিটকয়েন

রাশিদ রিয়াজ : জানুয়ারিতেই লাফিয়ে লাফিয়ে ক্রিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েনের দাম ৪২ হাজার ছাড়িয়ে যাওয়ার পর এর মূল্য নেমেছে এক সপ্তাহে ১৯ শতাংশ। আগামী দুই মাসে বিটকয়েনের দর কোথায় নামে এ নিয়ে আতঙ্কে রয়েছে বিনিয়োগকারীরা। শুক্রবার হংকংয়ে বিটকয়েনের দাম কমে দাঁড়ায় ২৯ হাজার ৩২৭ ডলারে। বৃহস্পতিবারের তুলনায় এর মূল্য কমেছে ১১ শতাংশ। গত বছর বিটকয়েনের দাম বেড়েছে ৩’শ শতাংশ। এমনকি বিটকয়েনের মূল্য পড়ে যাওয়ার আগের ১০দিনও এর দাম একনাগাড়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। আরটি/ডেইলি মেইল

কোনো কোনো বিশ্লেষক বিটকয়েনের দাম ১ লাখ ডলার ছাড়িয়ে যাবে এমন পূর্বাভাসও দিয়েছিলেন। জেপি মরগ্যানের মত আর্থিক খাতের বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান পূর্বাভাস দেয় বিটকয়েনের দাম ১ লাখ ৪৬ হাজার ডলার ছাড়িয়ে যেতে পারে। ওনাডা ইউরোপের সিনিয়র বাজার বিশ্লেষক ক্রেইগ এরলাম বলেছেন বিটকয়েনের বাজার পড়তির বিষয়টি খারাপ খবর। তবে এর দাম ২০ হাজার ডলারে নেমে গেলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। গত ডিসেম্বরে বিটকয়েন প্রথমবারের মত দ্বিগুণেরও বেশি দাম বেড়ে ২০ হাজার ডলার ছাড়িয়ে যায়। জানুয়ারির শুরুর দিকে তা ৩০ হাজার এবং দিন কয়েকের মধ্যে তা ৪২ হাজার ডলারে ওঠে। এখন দাম পড়ে যাওয়ায় ডিজিটাল সম্পদ হ্রাসের সঙ্গে সঙ্গে ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারে অস্থিরতা সৃষ্টি হচ্ছে। অথচ এও বলা হয়েছিল বিটকয়েন প্রধান ধারার বিনিয়োগ খাতে পরিণত হচ্ছে। তবে কেউ কেউ সতর্ক করে বলেছিলেন বিটকয়েন নিয়ে অতিরিক্ত ধারণার সৃষ্টি হয়েছে। বিটকয়েনের ওপর আস্থা রাখে এমন আরেক বিশ্লেষণ প্রতিষ্ঠান গ্রেস্কেল ইনভেস্টমেন্ট জানায় চতুর্থ প্রান্তিকে বিটকয়েনের বাজার মূলধন বৃদ্ধি পায় ৩ বিলিয়ন ডলার।

বিশ্লেষকরা এও বলছেন এখনো বিটকয়েনের দাম এখনো অন্তত দ্বিগুণ বাড়তি পর্যায়ে রয়েছে। গত ৫ জানুয়ারিতে বিটকয়েন লেনদেন হয় ৩০ হাজার ডলারে। আর এখন জেপি মরগ্যান চেজ এন্ড কোম্পনির বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন ইতিমধ্যে বিটকয়েন দ্রুত অতিরিক্ত বাজার মূলধন সংগ্রহ করে ফেলেছে। গত বৃহস্পতিবার বিশ্লেষক জন নরম্যান্ড ও ফেডিরিকো ম্যানিকার্ডি এক প্রতিবেদনে বলেছেন বিটকয়েনের বর্তমান মূল্য এর উৎপাদন মূল্যের চেয়ে ঢের বেশি। ফলে স্বাভাবিক পর্যায়ে এর মূল্য স্থিতিশীল হলে তা বিনিয়োগকারীদের জন্যে উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। গত ১০দিনে নিউইয়র্কে বিটকয়েনের মূল্য হ্রাস পেয়েছে ১০ শতাংশ। দাম দাঁড়িয়েছে ৩১ হাজার ৪৫৯ ডলারে। অক্টোবরের পর নিউইয়র্কের বাজারে এই প্রথম বিটকয়েনের দাম পড়তে শুরু করেছে। গবেষণা প্রতিষ্ঠান চেইনঅ্যানালাইসিসের প্রধান বিজ্ঞানি জ্যাকব ইলাম বলেন বিটকয়েনের মূল্যে উত্থান-পতন খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু ওনাডা’র সিনিয়র বাজার বিশ্লেষক এডওয়ার্ড ময়া বলেন বিটকয়েনের মূল্য পতন অবশ্যই উদ্বেগের বিষয়। আবার গেইন ক্যাপিটার গ্রুপের গবেষক ম্যাথিউ ওয়েলার আভাস দিয়েছিলেন বিটকয়েনের মূল্য অনায়াসে ৫০ হাজার ডলার ছাড়িয়ে যাবে। এখন তিনি বলছেন মূল্য সংশোধনে বিটকয়েনের মূল্যে বড় আকারের পতন ঘটতে পারে। ব্লাকরক ইনকরপোরেশন বলছে প্রথমবার অর্থব্যবস্থাপকরা বিটকয়েনে বিনিয়োগকারীদের মনোযোগ আকর্ষণের জন্যে চেষ্টা শুরু করেছিলেন।

তবে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কেনেথ রগফ বলেন বিটকয়েনের ওপর বিধিনিষেধ আরোপের মোক্ষম সময় এখন। তিনি ব্লুমবার্গের টম কেনিকে বলেন বিটকয়েনে বিনিয়োগ করতে যেয়ে ব্যাংকগুলো মস্ত বড় ভুল করছে। আর্থিক জরিপ প্রতিষ্টান নেইলসনের অর্থনীতিবিদ বলেছেন বিটকয়েনে বিনিয়োগ করে সর্বস্ব খোয়ানোর আগে ফের একবার ভাবা উচিত। কারণ দুইদিনে বিটকয়েনের দরপতনে ক্রিপ্টো বাজার থেকে ১’শ বিলিয়ন ডলার উধাও হয়ে গেছে। বিশ্বের এক নম্বর এই ক্রিপ্টোকারেন্সির মূল্য পতন ঘটেছে গত এক সপ্তাহে ১৮ শতাংশের বেশি। এরফলে সবধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজার মূলধন ১.০৬ ট্রিলিয়ন থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ৯২০ বিলিয়ন ডলারে। তারপরও গত তিনমাসের তুলনায় বিটকয়েনের প্রকৃতমূল্য এখনো ১৫০ শতাংশ বেশি আছে। বিশেষজ্ঞরা প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের বিটকয়েন নিয়ে আগ্রহকে এর কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। বিটকয়েনের সাম্প্রতিক মূল্যবৃদ্ধি স্বর্ণখাতে বিনিয়োগকারীদের নজর কেড়ে নিতে সমর্থ হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত