প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ভ্যাকসিন প্রয়োগে যাদের ক্ষেত্রে বেশি সতর্ক থাকতে হবে

শিমুল মাহমুদ: [২] টিকা তৈরির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হয় নিরাপত্তার দিকে। তাই টিকা প্রয়োগের আগে সাবধানতা পার করেই আসতে হয়। যুক্তরাজ্যের সরকার ফাইজার বায়োএনটেক, মডার্না এবং অক্সফোর্ড এ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার সর্তকতার বিষয়ে বলছে, টিকা দেওয়া আগে কোনো জটিলতা থাকলে তা চিকিৎসককে জানাতে হবে। আগে কোনো টিকায় তীব্র অ্যালার্জি হওয়া, তীব্র জ্বরসহ কোনো অসুস্থতা থাকা, অসুস্থতা বা ঔষধ প্রয়োগে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া, রক্তপাত বা আঘাত সংক্রান্ত সমস্যা, গুরুতর কোন অসুস্থতা এবং গর্ভবতী বা দুগ্ধপোষ্য শিশু থাকলে। এসব ক্ষেত্রে সতর্কতার কারণ হলো এসব রোগীদের উপরে টিকার কোনো ট্রায়াল হয়নি।

[৩] যেহেতু করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে অ্যান্টিবডি দীর্ঘস্থায়ী হয় না সেহেতেু আগে থেকে আক্রান্ত হলেও আমেরিকা এবং ব্রিটেনে টিকা দেওয়ার নির্দেশনা আছে। তবে টিকা গ্রহণের সময় আক্রান্ত থাকলে বা সুস্থ্য হওয়ার অল্প সময় পার হলে তাদের অপেক্ষার কথা বলা হচ্ছে।

[৪] ভ্যাকসিন বিশেষজ্ঞ ডা. তাজুল ইসলাম এ বারী বলেন, ভারতের সেরামের তৈরি অক্সফোর্ড এ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিন যুক্তরাজ্যে তেমন কোনো পাশ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি কিন্তু ভারতে সেটা হয়েছে।মেডিসিন এন্ড হেলথ কেয়ার অথরিটি যখন এর অনুমোদন দেয় তখন তারা বলেছে, সবাই এ ভ্যাকসিন দেওয়া যাবে শুধু মাত্র দেওয়া যাবে না, প্রথমে যদি কোনো ভ্যাকসিন দেওয়ার পর রিয়েকশন হয়। সেক্ষেত্রে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া যাবে না। যদি কারো খাদ্য বা মেডিসিনে এলার্জি থাকে সেক্ষেত্রে কোনো বাধা নয় তাদের দেওয়া যাবে। এছাড়া গর্ভবতী মাকেও দেওয়া যাকে কারণ এটা কিল (হত্যাকারী) ভাকসিন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত