প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘বাংলার ভাবী’ ছবি পরিচালনায় মৌসুমীর স্থলাভিষিক্ত হলেন নূর মোহাম্মদ মনি

ইমরুল শাহেদ: পরিকল্পনা মাফিক বাংলার ভাবী ছবির পরিচালক মৌসুমী থাকার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তিনি থাকেননি। পরিচালক সমিতিতে ছবিটির নাম নিবন্ধিত হয়েছে পরিচালক নূর মোহাম্মদ মনির নামে। জানা গেছে, আউটডোরে ছবিটির যে ক’দিন শুটিং হয়েছে তার মধ্যে একদিন নূর মোহাম্মদ মনি শুটিং করেছেন। মৌসুমী প্রতিদিনই লোকেশনে গেছেন ভাবী চরিত্রে অভিনয়ের জন্য।

ছবিটির লোকেশন ছিল ময়মনসিংয়ের তেপান্তর ষ্টুডিওতে। মৌসুমী সেখানে যাতায়াত করেই কাজ করেছেন। এ ছবিতে মৌসুমীর বিপরীতে রয়েছেন ওমর সানি। কিন্তু ছবিটি নিয়ে বিভিন্ন নেতাবাচক কথা রটেছে ষ্টুডিও পাড়ায়। নৃত্য পরিচালক সাইফুল ইসলাম সেতুবন্ধন নির্মাণের অনেক দিন পর এই ছবিটির কাজ শুরু করেছেন। গণমাধ্যমে লেখা হয়েছে, ‘অর্থের অভাবে ইউনিট আটকা পড়েছিল ষ্টুডিওতে।’ কিন্তু এমনটা হওয়ার কথা নয়। এই ষ্টুডিওটির মালিক এক সময়ের খ্যাতিমান পরিচালক এজে মিন্টু। পরিচালনা করে তারই লোকজন।

নৃত্য পরিচালক সাইফুল ইসলামও চলচ্চিত্রে অচেনা কেউ নন। তার ইউনিট এজে মিন্টুর ষ্টুডিওতে আটকা পড়েছে সেটা শুনলেও খটকা লাগে। ছবিটির চিত্রগ্রাহক আসাদুজ্জামান মজনু বলেন, ‘গণমাধ্যম এসব খবর কোথায় পায় সেটা আমার জানা নেই। লোকেশন টাকা পৌঁছতে চার ঘন্টা দেরি হয়েছে। আর্থিক লেনদেনে এমনটাতো হতেই পারে। এটা আসলে সংবাদ হওয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ কোনো বিষয় নয়।’ আসলে সেখানে ঘটনা ছিল অন্য। ছবিটি আউটডোর লোকেশনে যাওয়া পর্যন্ত পরিচালক সমিতিতে নিবন্ধিত হয়নি। পরিচালক সমিতিকে জানানো হয়নি ছবিটির পরিচালক কে। এজন্য পরিচালক সমিতি থেকে চিত্রগ্রাহক লোকেশন ছেড়ে চলে আসতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তার অব্যাবহিত পরেই ছবিটির নাম নূর মোহাম্মদ মনির নামে পরিচালক সমিতিতে নিবন্ধিত হয়। মৌসুমী জানিয়েছেন, পরিচালনা নয় তিনি ছবিটিতে শুধু অভিনয়ই করছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত