প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চীনের মধ্যস্থতায় ১৯ জানুয়ারি মিয়ানমারের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে আশাবাদী বিশ্লেষকরা

ভূঁইয়া আশিক রহমান: [২] [১]গণহত্যার অভিযোগে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের দেওয়া অন্তর্বর্তীকালীন আদেশটি ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে হাইলাইট করার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

[৩] আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক শমসের মবিন চৌধুরী বলেছেন, রোহিঙ্গা সংকটে চীন কী ভূমিকা রাখবে আমরা এখনো জানি না। তবে বাংলাদেশ, চীন ও মিয়ানমারের ত্রিপক্ষীয় এই বৈঠক অত্যন্ত ইতিবাচক, হোক সেটা সচিব পর্যায়ের।

[৪] তিনি বলেন, বৈঠক হলেই যেকোনো সংকটের সমাধান হয়ে যায় না, তবে বৈঠকের ফলে মিয়ানমার-বাংলাদেশের মধ্যে দূরত্বটা আর বাড়বে না। আমাদের আশা, এই বৈঠকের মাধ্যমে সংকট সমাধানের দিকে এগোবে।

[৫] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক, অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেন বলেন, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ত্রিপক্ষীয় বৈঠক কূটনৈতিক দিক থেকে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ অর্জন। তবে বাস্তবতা হচ্ছে, চীনের সমর্থন ছাড়া রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো সম্ভব নয়। মিয়ানমারকে রাজিও করানো যাবে না।

[৬] মিয়ানমার বিশ্বে এখন একটি বিচ্ছিন্ন রাষ্ট্র, এই বিষয়টা বেশি বেশি করে সামনে নিয়ে আসতে হবে। রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরের ব্যাপারেও চীনের সহযোগিতা আমাদের লাগবে, সেটা চীনকে বোঝাতে হবে। রোহিঙ্গা সংকটের কারণে বাংলাদেশের পাশাপাশি এই পুরো অঞ্চল সাফার করবে, এটাও সকলকে স্মরণ করিয়ে দিতে হবে। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত