প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কামরুল আহসান: চারদিক ভরে গেছে কেবল আগাছায়

কামরুল আহসান : আমাজান-আফ্রিকার গহীন জঙ্গলে গেলেও আপনি হয়তো এখনো এমন অনেক অনগ্রসর জনগোষ্ঠী খোঁজে পাবেন যারা জানে না পৃথিবীতে বিদ্যুৎ আবিষ্কার হয়েছে, মানুষ চাঁদে গেছে, অনেক কাজ চলে কম্পিউটারের কমান্ডে। তাদের মধ্যেও হয়তো একটু সভ্যতা আছে, কারণ লাখ বছরের মানবসমাজের বিবর্তনে কিছু সভ্য-আলো এমনতিতেই প্রত্যেকে প্রাপ্ত হয়। তাদের মধ্যেও কিছু নীতি-নৈতিকতা আছে; কিছু নীতি-নৈতিকতা নিম্নশ্রেণির পশু-পাখির মধ্যেও বর্তমান। কিন্তু এই বাঙালি জাতির বোধহয় অর কোনো নৈতিকবোধই অবশিষ্ট নেই। সবচেয়ে ভদ্র, শিক্ষিত লোকটিও এখন বাংলাদেশে ফাঁকফোকর খোঁজে কোথা দিয়ে কতোটুকু সুযোগ-সুবিধা আদায় করা যায়। সততা ও সরলতাকে ভাবে বোকামি ও মূর্খতা। কাকে কীভাবে কতোটুকু ঠকানো যায় এই বোধহয় এখনকার একমাত্র শিক্ষা। সমাজের একেবারে আপাদমস্ত পচে গেছে। কোথায় কী দেখে এসব কথা বললাম তা আর জানতে চাইয়েন না, বলেন কোথায় পচন ধরেনি!

রেল-ইস্টিশনের প্ল্যাটফর্ম বানায় এখনো ট্রেন লাইনের নিচে, যেন যাত্রী-উঠতে নামতে গিয়ে ওষ্ঠা খেয়ে পড়ে। রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তায় বছর জুড়ে খোড়াখুড়ি চলে, আল্লাই জানে কেন চলে! দেশে কমদামে আদমানিকৃত পেঁয়াজ এমন সময় আসে যখন আমাদের চাষীরা ঘরে মাত্র পেঁয়াজ তুলছে! পাঁচজন ডক্টরেটকে বাদ দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি দেয়া হয়েছে তাদের চেয়ে অনেক কম যোগ্যতাদের। অন্যান্য স্কুল-কলেজে গেলেও দেখা যাবে এই অবস্থা। বেসরকারি স্কুল-কলেজে তো শ্বশুরবাড়ির লোকদের ধরে ধরে নিয়োগ দেয়া হয়।

কাল রাতে একটু টিভি দেখতে বসেছিলাম। এমন অযোগ্য সব শিল্পী এসে টিভিতে গান গায়, মিনিমাম লজ্জা থাকলেও তো নিজের যোগ্যতা বুঝতো! টিভিতে খালি চেহারা দেখাতে পারলেই হলো। আর কী বিচারক। ওরে বাবা, শিল্পীর গানের সাথে সাথে সেও নাচে। গেলাম নাটকে দেখতে। ওরে বাবা, কী সংলাপ। কারা এসব অভিনেতা-অভিনেত্রী, কারা নাট্যকার, কারা পরিচালক, অনেক দিন মিডিয়াতে নাই, কিছুই জানি না, চারদিক ভরে গেছে কেবল আগাছায়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত