প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনা মহামারীর গতিপ্রবাহ লক্ষ্য না করে
[১] শুধু ভ্যাকসিনের দিকে তাকিয়ে থাকা মারাত্মক ভুল, স্বাস্থ্যবিধি মানার বিকল্প নেই: বিশেষজ্ঞ অভিমত

শিমুল মাহমুদ: [২] স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ডা. বে-নজির আহমেদ বলেন, বাংলাদেশে শনাক্ত কম করা যাচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে সংক্রমণ কম। বয়স্ক জনসংখ্যা কম বলে মৃত্যুহারও কম। তাই বাংলাদেশ করোনা নিয়ন্ত্রণে সফল বলে অনেকে ভ্রান্তিবিলাসে রয়েছেন। এতে সাধারণ জনগণের কাছে ভুল বার্তা যাচ্ছে। তিনি বলেন, সামনের দিনগুলোতে দেশে সংক্রমণ অনেক বাড়বে। প্রাকৃতিকভাবে নিয়ন্ত্রিত না হলে নিশ্চিতভাবেই বলা যায়, করোনা বাংলাদেশের একটি ‘স্থায়ী এন্ডেমিক ডিজিজ’ এ রূপ নিতে যাচ্ছে।

[৩] ব্র্যাক এইচএনপিপি-র সহযোগী পরিচালক ড. মোর্শেদা চৌধুরী বলেন, বেশিরভাগ মানুষ এখন মনে করেন দেশে আর করোনা নেই। গ্রামীণ জনগোষ্ঠী মনে করেন, এটা গ্রামের রোগ নয়, গরীবের রোগ নয়। এগুলো শুধু জনসাধারণের মধ্যেই নয়, এই ভ্রান্ত ধারণাগুলো কর্তৃপক্ষের মধ্যেও রয়েছে যা দূর করার পরিকল্পনা করতে পারেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। তাছাড়া যারা ভাবছেন করোনা হবে না, তারা ভ্যাকসিন নেবার ব্যাপারেও উদাসীন হতে পারেন। অতীতে সরকার এবং এনজিও একসাথে কাজ করে বিভিন্ন টিকাদান কর্মসূচীতে সফলতা পেয়েছিল। এখনও সেভাবে কাজ করতে হবে।

[৪] যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া রাজ্যের ফুলটন কাউন্টির চীফ এপিডেমিওলোজিস্ট ড. ফজলে খান বলেন, ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার মেয়াদও কেউ বলতে পারছেন না। কোন এলাকার ৮০-৮৫ শতাংশ জনগোষ্ঠী ভ্যাকসিন না পাওয়া পর্যন্ত ‘হার্ড ইমিউনিটি’ পাওয়াও সম্ভব নয়। বাংলাদেশের মতো দেশে কবে সবাই ভ্যাকসিন পাবে তাও নিশ্চিত নয়। তাই সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।

[৫] রোববার রাতে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা উন্নয়ন ফোরাম আয়োজিত ‘ভ্যাকসিন এবং অন্যন্য প্রতিরোধমূলক কার্যক্রম বাস্তবায়নে বাংলাদেশ কি প্রস্তুত?’ শীর্ষক এক ওয়েবিনারে বক্তারা এসব মতামত ব্যক্ত করেন। কম্বোডিয়ার রাজধানী নমপেন থেকে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বিশ্ব ব্যাংকের সিনিয়র হেলথ স্পেশালিস্ট এবং স্বাস্থ্য ব্যবস্থা উন্নয়ন ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা ড. জিয়াউদ্দিন হায়দার।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত