প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শঙ্কর মৈত্র :পুলিশ খুঁজে পায় না, দুদক খুঁজে পায় না, সাংবাদিক খুঁজে পায় কী সেটা?

শঙ্কর মৈত্র : পুলিশ খুঁজে পায় না, দুদক খুঁজে পায় না। সাংবাদিক খুঁজে পায়। আসামি খুঁজে বের করে শুধু বক্তব্য প্রচার নয়, লাইভ দেখিয়েও দিচ্ছে। এটাই তো সাংবাদিকের কৃতিত্ব, অন্যদের ব্যর্থতা। আদালতের উচিত মিডিয়ার কৃতিত্বকে ধন্যবাদ জানানো, অন্যদের জবাবদিহিতায় নিয়ে আসা। কিন্তু তা না করে আসামি খুঁজে বের করা যাবে না, কথা প্রচার করা যাবে না, করলে শাস্তি দেয়া হবে এমন নিষেধাজ্ঞা যদি দেয়া হয় তা হলে সাংবাদিকরা সত্য ঘটনা প্রকাশ করবে কেমনে? সত্যের অনুসন্ধান করবে কেমনে? আপনারা সঠিক তথ্যও জানতে চাইবেন, আবার হাত পা বেঁধে রাখবেন তা কেমন করে হয়?

নির্বাহী বিভাগের ভয়ে এমনিতেই তটস্থ। নানা আইন তৈরি করে জেলের ভয়ে রাখেন। সদা সত্য কথা বলার সাহস আর নেই। শেষ আশ্রয়স্থলতো আপনারাই। সেখানেও যদি ভয় ঢুকিয়ে দেন আমরা যাবো কোথায়? সত্য প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা না দিয়ে যদি নির্বাহী বিভাগকে বলতেন আসামী পৃথিবীর যেখানেই থাকুক তাকে ফিরিয়ে নিয়ে আসেন, সেটা কী কঠিন হবে এ বিশ্বায়নের যুগে? মিডিয়া তো আসামির অবস্থান চিহ্নিত করে দিলো। মিডিয়াকে উৎসাহ দিন, রাষ্ট্র, সরকার,জনগণ সবার জন্যই মঙ্গল হবে। মিডিয়া কারও প্রতিপক্ষ না। সঠিক তথ্য জানানো ছাড়া আর কোনো কাজ নেই মিডিয়ার।

লন্ডনে পলাতক তারেক রহমানের বক্তব্য প্রচারেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে আদালতের। টিভি বা পত্রিকায় আদালতের আদেশ মেনে চলেছে। কিন্তু ফেসবুক, ইউটিউবসহ নানা মাধ্যমে তো প্রতিনিয়তই বক্তব্য রাখছেন তিনি। দলীয় ফোরামেও স্যোসাল মিডিয়ার মাধ্যমে অংশ নিচ্ছেন। বিষয়টি কি আদালত জানেন? দুদক কি জানিয়েছে? আসলে সব খড়গ নেমে আসে মিডিয়ার ওপর। শাঁখেরকরাতে আছে মিডিয়া। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত