প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] খাল ও বক্স কালভার্ট পরিষ্কারে শনিবার থেকেই ক্রাশ প্রোগ্রাম শুরু, ২৬টি খালের দায়িত্ব পেলো ২ সিটি করপোরেশন

সুজিৎ নন্দী ও মহসীন কবির : [৩] স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ১৯৮৮ সালের আগে ঢাকার খালগুলো তদারকি করত তৎকালীন ঢাকা মিউনিসিপ্যাল করপোরেশন। কিন্তু কোন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ওই খালগুলো ওয়াসার কাছে গেল তার সঠিক কারণ জানা যায়নি। তাই এতোদিন খালগুলো রক্ষণাবেক্ষণে অনেকটা সমন্বয়হীনতা ছিল।

[৪] তিনি বলেন, এখন ঢাকার ২৬টি খাল ওয়াসার কাছ থেকে ডিএনসিসি এবং ডিএসসিসিকে হস্তান্তর করা হয়েছে। সেগুলো রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব ওই দুটি সংস্থা করবে। এতে নগরে আর জলাবদ্ধতা হবে না।

[৫] তিন খাল ও দুই বক্স কালভার্ট পরিষ্কারে শনিবার হতেই ক্র্যাশ প্রোগ্রাম শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

[৬] বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর একটি হোটেলে ঢাকা মহানগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসার নিকট হতে ডিএসসিসি এবং ডিএনসিসি কাছে হস্তান্তরের লক্ষে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

[৭] তিনি বলেন, জিরানি খাল, মান্ডা খাল ও শ্যামপুর খাল এবং পান্থপথ বক্স কালভার্ট ও সেগুন বগিচা বক্স কালভার্ট হতে, যেখানে দীর্ঘদিনের স্তুপকৃত বর্জ্য যা শক্ত হয়ে গিয়েছে, বর্জ্য অপসারণের বিশাল কর্মযজ্ঞ আমরা হাতে নিয়েছি। আগামী মার্চের মধ্যে এই তিনটি খাল ও দুুটি বক্স কালভার্ট হতে বর্জ্য অপসারণ করার কাজ শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা আমরা নির্ধারণ করেছি।

[৭] এই অপসারণ কার্যক্রমে ঢাকাবাসীর সহযোগিতা কামনা করে মেয়র তাপস বলেন, এই তিনটি খালের দৈর্ঘ্য প্রায় ২০ কিলোমিটার এবং বক্স কালভার্টগুলোর কী অবস্থা, কাজ শুরু না করলে আমরা বুঝতে পারব না। আগামী মার্চের মধ্যে এই তিনটি খাল ও দুটি বক্স কালভার্ট যদি আমরা পরিষ্কার করতে পারি, তাহলে আগামী জুন নাগাদ বাকীগুলো ধরব।

[৮] তাপস আরও বলেন, আমরা আদি বুড়িগঙ্গা চ্যানেল ধরব, ধোলাই খালের বক্স কালভার্ট ধরব। পর্যায়ক্রমে আগামী জুন মাস নাগাদ আমরা এগুলো সব পরিষ্কার করার বিশাল কর্মযজ্ঞ হাতে নিয়েছি এবং আমাদের নিজস্ব অর্থায়নে।

[৯] বর্জ্য অপসারণের পাশাপাশি খালগুলো নিয়ে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা এই খালগুলোর যেমনি সীমানা নির্ধারণ তেমনি অবৈধ সব দখল উচ্ছেদ এবং উচ্ছেদ করার পর সেই জায়গাগুলোর সংরক্ষণ, রক্ষণাবেক্ষণ, পরিচালনা এবং নান্দনিক পরিবেশ সৃষ্টি করা হবে।

[১০] তাপস বলেন, দু’টি কারণে আজকের দিনটি ঐতিহাসিক – একটি হলো ঢাকা ওয়াসার নিকট হতে জলাবদ্ধতা নিরসনের গুরুদায়িত্বতা সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তর, দ্বিতীয়টি ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। আর ইচ্ছা ও উপায়ের সেতুবন্ধন হলো রাজনৈতিক নেতৃত্ব।

[১১] ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আগে বৃষ্টি হলেই খালের পানি নেমে যেত। কিন্তু এখন বৃষ্টির কয়েক ঘন্টা পরও রাস্তা থেকে পানি নামে না। তাই নিজ উদ্যোগে ডিএনসিসির অধীনে থাকা সবগুলো খাল তারাও পরিস্কার করেছেন। তাই চলতি বছর নগরে জলাবদ্ধতা হবে। এ ছাড়া এসব খালের সৌন্দর্য বাড়াতে তারাও প্রকল্প নিয়েছেন।

[১২] অনুষ্ঠান ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমান উল্লাহ নুরী ও ঢাকা ওয়াসার এমডি তাকসিম এ খান হস্তান্তর প্রক্রিয়া নিয়ে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন। সম্পাদনা: বাশার নূরু

সর্বাধিক পঠিত