প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারত-পাকিস্তানে মিলল করোনার নতুন ধরন

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের নতুন ধরন (স্ট্রেইন) শনাক্ত হয়েছে ভারত ও পাকিস্তানে। দুই দেশই শনাক্তের বিষয়টি মঙ্গলবার নিশ্চিত করেছে। আক্রান্তদের সবাই সম্প্রতি ব্রিটেন থেকে এসেছে। এছাড়া নতুন ধরনটি এদিন দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও ফিনল্যান্ডেও শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী এ পর্যন্ত করোনায় ১৭ লাখ ৮৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। করোনায় ইউরোপের অন্যতম ক্ষতিগ্রস্ত দেশ স্পেন ফাইজারের টিকা দেয়া শুরু করেছে। দেশটিতে ভ্রমণ করতে হলে ভ্যাকসিন নিতে হবে বলে জানিয়েছে স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। অপরদিকে ইন্দোনেশিয়া করোনা নির্ণয়ের সহজ যন্ত্র আবিষ্কার করছে।

ভারতে সাত ও পাকিস্তানে ছয়জনের শরীরে নতুন ধরন : ভারতে মঙ্গলবার সাতজনের দেহে করোনার নতুন স্ট্রেইন শনাক্ত হয়। সম্প্রতি তারা ছয়জনই ব্রিটেন থেকে ভারতে আসেন। এরা ব্যাঙ্গালুরু, দু’জন হায়দরাবাদে এবং অন্যজন পুনেতে অবস্থান করছেন। তাদের প্রত্যেককে রাষ্ট্রীয় সহায়তায় আলাদা কক্ষে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। অন্যদিকে পাকিস্তানেও যুক্তরাজ্য ফেরত কয়েকজনের দেহে নতুন ধরনের করোনা ধরা পড়েছে। সিন্ধু প্রদেশের স্বাস্থ্য দফতর যুক্তরাজ্য ফেরত ১২ জনকে পরীক্ষা করালে ছয়জনের শরীরে নতুন ধরন শনাক্ত হয়। নতুন ধরনটি দক্ষিণ কোরিয়া ও ফিনল্যান্ডেও শনাক্ত হয়েছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাজ্য থেকে আসা তিন দক্ষিণ কোরীয়র দেহে করোনাভাইরাসের এ নতুন রূপ শনাক্ত হয়েছে। নতুন ধরনের দেখা মিলেছে কানাডা এবং জাপানেও।

বিশ্বে মৃত্যু ১৭ লাখ ৮৪ হাজার ছাড়াল : বিশ্বে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৮ কোটি ১৭ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। আর এ ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে ১৭ লাখ ৮৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন।

ওয়ার্ল্ডওমিটারসের সর্বশেষ তথ্য বলছে, মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ বিশ্বে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৮ কোটি ১৭ লাখ ৭২ হাজার ৮১৫। একই সময় নাগাদ বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ১৭ লাখ ৮৪ হাজার ২৪৪ জন। এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনা থেকে সেরে ওঠা মানুষের সংখ্যা ৫ কোটি ৭৯ লাখ ৩৫ হাজার ১৩৯।

ইন্দোনেশিয়ায় করোনা নির্ণয়ের সহজ যন্ত্র আবিষ্কার : ইন্দোনেশিয়ার গবেষকরা করোনাভাইরাস শনাক্তের সবচেয়ে সহজ একটি যন্ত্র আবিষ্কার করেছেন। এখানে নাকে-মুখে কোনো কিট প্রবেশের প্রয়োজন নেই। যে কোনো ব্যক্তি উক্ত যন্ত্রে বেলুন ফোলানোর মতো শ্বাস দিলেই শনাক্ত করা যাবে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কিনা। ইন্দোনেশিয়ার গাদজা মাদা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক গেল ৯ মাস প্রচেষ্টা চালিয়ে এ যন্ত্র আবিষ্কার করেছে। গেল ২৪ ডিসেম্বর দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিয়েছে এ যন্ত্রের। শিগগিরই এটার বিপুল পরিমাণ উৎপাদন শুরু হবে। যন্ত্রটির নাম দেয়া হয়েছে জিনোস সি১৯।

টিকা নিতে অনাগ্রহীদের তালিকা করবে স্পেন : করোনাভাইরাসের টিকা নিতে যারা অনিচ্ছা প্রকাশ করছে তাদের তালিকা করবে স্পেন। সরকারিভাবে তাদের নাম নিবন্ধন করা হবে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, এ তথ্য তারা ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে শেয়ার করবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী সালভাদর ইলা বলেছেন, স্পেনে ভ্রমণ করতে হলে দিতে হবে ভ্যাকসিন। লাগবে করোনার টিকা গ্রহণের প্রমাণপত্র।

জার্মানিতে ভ্যাকসিন কর্মসূচির শুরুতে অব্যবস্থাপনা : বায়োএনটেক-ফাইজার ভ্যাকসিন বিতরণে একেবারে শুরুর পর্যায়েই জার্মানিতে ধরা পড়েছে সমস্যা। বেশ কিছু ক্ষেত্রে ভ্যাকসিন পর্যাপ্ত ঠাণ্ডায় রাখা যায়নি। এক বিবৃতিতে বাভারিয়ার লিশেটনফেলস জেলা কর্তৃপক্ষ বলেছে, কুল বক্সে ন্যূনতম যে তাপমাত্রার উল্লেখ করা হয়েছে তার সঙ্গে মেলাতে গিয়েই প্রথমে সমস্যাটা চোখে পড়ে।

ব্রিটেনে তৃতীয় ঢেউ সামলাতে সপ্তাহে দিতে হবে ২০ লাখ টিকা : করোনাভাইরাস মহামারীর তৃতীয় ঢেউ সামলাতে হলে প্রতি সপ্তাহে অন্তত ২০ লাখ মানুষকে টিকা দিতে হবে। এক গবেষণায় এমন দাবি করেছে লন্ডন স্কুল অফ হাইজিন অ্যান্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিন (এলএসএইচটিএম)। এখন পর্যন্ত ব্রিটেনে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৭১ হাজারের বেশি মানুষের, আক্রান্ত হয়েছেন ২৩ লাখের বেশি মানুষ। গবেষণায় বলা হয়েছে, করোনার নতুন প্রজাতির সংক্রমণ রুখতে জানুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে। এছাড়া প্রতি সপ্তাহে গণহারে ২০ লাখের বেশি মানুষকে টিকা দিতে হবে। প্রথম ঢেউয়ের মতো পরিস্থিতি এড়াতে এটাই একমাত্র পথ। সূত্র: যুগান্তর

সর্বাধিক পঠিত