প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চীন-তুরস্ক ‘সন্ত্রাস দমন’ চুক্তি: দ্রুত বাস্তবায়ন চায় বেইজিং

আব্দুল্লাহ যুবায়ের: [২] শরণার্থী ও উইঘুর মুসলমানদের ফেরত পাঠিয়ে কিভাবে সন্ত্রাস মোকাবেলা করা যায়, সে বিষয়ে ২০১৭ সালে চীন ও তুরস্কের একটি চুক্তি হয়েছিলো। বর্তমানে চীন সে চুক্তির দ্রুত বাস্তবায়ন চাচ্ছে। দ্য গার্ডিয়ান

[৩] বর্তমানে তুরস্কে প্রায় ৫ হাজার উইঘুর মুসলিম আছে। মানবাধিকার কর্মীরা মনে করছে, চুক্তিটি বাস্তবায়ন হলে এই উইঘুরদের জীবন বিপন্ন হবে।

[৪] তুর্কি পার্লামেন্ট এখনও পর্যন্ত ২০১৭ সালে স্বাক্ষরিত দ্বিপক্ষীয় চুক্তির অনুমোদন দেয়নি। অন্যদিকে, তুরস্কের জনসাধারণ উইঘুরদের প্রতি সহানুভূতিশীল।

[৫] ২০১৩ সালে বেইজিংয়ের তিয়েনআনমেন স্কয়ারের গাড়ি দুর্ঘটনাকে পুলিশ ‘সন্ত্রাসী হামলা’ বলে আখ্যা দিয়েছিলো। এ ঘটনার জন্য চীন দায়ী করে আসছে উইঘুরদের। সন্ত্রাস দমনের নামে তাদের উপর চালাচ্ছে দমন পীড়ন।

[৬] চীন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বর্তমানে তাদের ক্যাম্পে উইঘুরসহ ১০ লাখ শরণার্থী রয়েছে। পশ্চিমারা বলছে, চীন শরণার্থীদের উপর নির্যাতন চালাচ্ছে। পশ্চিমাদের এমন ধারনা নাকচ করে চীন বলছে, তারা শরণার্থীদের ভকেশনাল ট্রেইনিং দিয়ে শিক্ষিত করে গড়ে তুলছে। সম্পাদনা: আসিফুজ্জামান পৃথিল

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত