প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ‘দুর্ভোগ, কান্না ও বিয়োগান্তক বছর ২০২০, ২১ হবে প্রত্যাশার’, নতুন বছরের বার্তায় জাতিসংঘ প্রধান

লিহান লিমা: [২] টুইটে দেয়া নতুন বছরের ভিডিও বার্তায় জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস বলেন, ‘২০২০ সালে কোভিড-১৯ আমাদের জীবনকে ওষ্ঠাগত করে তুলেছে, বাড়িয়েছে বিষাদ ও দুর্ভোগ, মহামারীর সংক্রমণ মৃত্যু ও অসুস্থতা জোয়ার উঠিয়েছে। আমরা অনেক প্রিয়জন হারিয়েছি, বেড়েছে দারিদ্র্য, বৈষম্য, ক্ষুধা। কর্মসংস্থান হারিয়ে যাচ্ছিলো, বেড়েছিলো ঋণ, শিশুরা ভুগেছে, ঘরে ঘরে সহিংসতা বেড়েছে। সবখানেই ছিলো অনিরাপত্তা। ইউএননিউজ

[৩] জাতিসংঘ মহসচিব নতুন বছরে সম্ভাবনার প্রত্যাশা ব্যক্ত করে বলেন, নতুন বছরে আমরা আশার আলো দেখতে পাচ্ছি। মানুষ প্রতিবেশি ও অন্যান্যদের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে, সম্মুখসারীর কর্মীরা নিজেদের সর্বোচ্চ করছে, বিশ্ব ইতিহাসে রেকর্ড পরিমাণ সময়ের মধ্যে বিজ্ঞানীরা টিকা আবিষ্কার করেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন প্রতিরোধে দেশগুলো নতুন প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছে। যদি আমরা ঐক্য ও ভাতৃত্ব বজায় রেখে একসঙ্গে কাজ করি, আশার এই আলো বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়ে যাবে। সবচেয় কঠিনতম বছর আমাদের এই শিক্ষাই দিয়েছে।

[৪] এই সময় জলবায়ু পরিবর্তন প্রতিরোধে গুরুত্বারোপ করে গুতেরেস বলেন, ‘জাতিসংঘের ২০২১ সালের লক্ষ্যমাত্রা হলো ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বকে শূন্য কার্বন নিঃসরণে আনতে বৈশ্বিক একাত্মতা গড়ে তোলা। প্রত্যেক ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান, শহর ও সরকারগুলো এই লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নে ভূমিকা পালন করবে। আমরা একসঙ্গে প্রকৃতির সঙ্গে শান্তি স্থাপন করবো, জলবায়ু পরিবর্তন প্রতিরোধ করবো, কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ রোধ করে ২০২১ সালকে ঐক্যবদ্ধ শক্তির বছরে রুপান্তরিত করবো। ভঙ্গুর অর্থনীতি, সমাজ, মহামারী, বিভক্তি থেকে বিশ্বকে রক্ষা করবো।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত