প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যশোরে বিশে হত্যার রহস্য উদঘাটন মূল হোতা সাগর আটক, আদালতে দ্বায় স্বীকার

যশোর প্রতিনিধি: [২] মামলার মূল হোতা সাইফুল ইসলাম সাগরকে শনিবার ভোরে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসময় হত্যা কাজে ব্যবহৃত চারটি বার্মিজ চাকু উদ্ধার করা হয়। আসামি সাইফুল ইসলাম সাগর বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের জসিমের বাড়ির ভাড়াটিয়া দেলোয়ার হোসেনের ছেলে।

[৪] শনিবার দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন শিকদার এক প্রেসব্রিফিংয়ে এ সব তথ্য জানান। পরে আসামি সাগরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

[৫] জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুদ্দীন হোসাইন জবানবন্দি গ্রহন শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। আদালত ও পুলিশ সূত্র জানায়, বিশে হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আসামি সাগর জানায়, একটি বালির ডিবি কেনা নিয়ে বিশের সাথে পার্টনারশিপ হয়। কিন্তু যে টাকা দিয়েছিলো তার দিগুণেরও বেশি টাকা বিশেকে দেয়া হয়। এরপরও বিশে সাগরের কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করে । টাকা না পেয়ে ওইদিন বিশে সাগরকে মারপিট করে। পরে সাগর অন্য আসামিদের ডেকে আনে। আরবপুর মোড়ে যেয়ে বিশেকে ছুরকাঘাত করে হত্যা করে। এরপরই তারা যে যার মত সটকে পড়ে।

[৬] এদিকে এঘটনায় নিহত বিশের ভাই শুভ হাওলাদার (৩০) থানায় মামলা করেন। অভিযোগে তিনি বলেন, তার ভাই মৃত আমিনুর রহমান @ বিশে (৪৫) ব্যবসা করিয়া জীবিকা নির্বাহ করিত। আসামি সাগর ও তার ভাই একই সাথে বালির ব্যবসা করিত। সেই কারনে বাদীর ভাই আসামি সাগরের কাছে কিছু টাকা পেতো। আসামি সাগর বাদীর ভাইয়ের বালির ব্যবসার পাওনা টাকা না দেয়ায় শত্রুতা শুরু হয়। ভিকটিম আমিনুর রহমান @ বিশে’কে খুন করার জন্য সাগর ষড়যন্ত্র করতে থাকে।

[৭] উল্লেখ্য, এর আগে গত ২৪ ডিসেম্বর এ হত্যা মামলায় আটক আরো তিনজন আসামী আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তারা হলেন, সদর উপজেলার বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে আশরাফুল ইসলাম আকাশ, মৃত আনছার আলীর ছেলে তরিকুল ইসলাম কর্ণ ও একেএম শামসুদ্দিনের ছেলে তাহাসিনুল ইসলাম নাঈম। তারা সকলেই হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত