প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যুক্তরজ্যে আবারও করোনার নতুন ধরণ শনাক্ত, এটির উৎপত্তিস্থলও দক্ষিণ আফ্রিকা

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক জানিয়েছেন, দেশটিতে আরও একটি নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে যাতে দুই জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের একজন লন্ডন অপরজন উত্তর-পশ্চিম ইংল্যান্ডে থাকতেন। সম্প্রতি তারা দক্ষিণ আফ্রিকা ফেরত ব্যক্তিদের সংস্পর্শে এসেছিলেন। এ ঘটনার পর দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে লন্ডন। দ্য গার্ডিয়ান

[৩] গত ১৪ দিনে যারা দক্ষিণ আফ্রিকায় ভ্রমণ করেছেন কিংবা তাদের সংস্পর্শে এসেছেন, তাদের দ্রুত কোয়ারেন্টাইনে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকায় এরইমধ্যে এই ভাইরাসটি নিয়ে ব্যাপক উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জোয়াইলি ম্যাখিজে সতর্ক করে বলেন, ‘তরুণ, আগে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী ছিলেন এমন ব্যক্তিরাও ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। আমরা এইডস মহামারীর সময়কার পরিস্থিতিতে ফেরত যেতে চাই না।’ বিবিসি

[৪] দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা বলছেন, ভাইরাসের এই ভ্যারিয়ান্টটি দ্রুত ছড়ায় এবং দেশটির অনেক এলাকায় এর সংক্রমণও বেশি দেখা যাচ্ছে। এই ভ্যারিয়ান্টটি নিয়ে এখনো বিশ্লেষণ চলছে। তবে এখনো পর্যন্ত যে তথ্য পাওয়া গেছে, তাতে দেখা যাচ্ছে যে এটি অতি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। সিএনএন

[৫] নতুন এই ভ্যারিয়ান্টটির সাথে এর আগে যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হওয়া নতুন বৈশিষ্ট্যের আরেকটি ভাইরাসের সাথে কিছুটা মিল রয়েছে। যদিও ভাইরাস দুটি আলাদা ভাবে বিবর্তিত হয়েছে। দুটি ভাইরাসেরই একটি নির্দিষ্ট অংশে এন৫০১ওয়াই নামে একটি পরিবর্তন হয়েছে। ওই অংশটি দিয়ে মানুষের দেহের কোষকে আক্রান্ত করে ভাইরাসগুলো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত