প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাবেক মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ মাদ্রাসায় পড়েছেন
[১] ৬১০ মাদ্রাসা বন্ধের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে উত্তপ্ত আসাম

মাছুম বিল্লাহ: [২] আসামের বিজেপি সরকারের মুখপাত্র ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী চন্দ্র মোহন পাটোওয়ারি টেলিফোনে মঙ্গলবার আমাদের নতুন সময়কে বলেন, গত রোববার বিষয়টি রাজ্য মন্ত্রিসভায় মাদ্রাসা ও সংস্কৃত স্কুল বন্ধের সিদ্ধান্ত পাস হয়েছে। আগামী ২৮ ডিসেম্বর রাজ্যের বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশনে এ বিষয়ে একটি বিল পেশ করা হবে।

[৩] এদিকে বিজেপির এ ঘোষণায় আসামজুড়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে। প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস, এআইডিএফ জোটসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও ছাত্র সংগঠন আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে।

[৪] এ বিষয়ে অল আসাম মাইনোরটি ছাত্র ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট (আমছু) রেজাউল করিম সরকার টেলিফোনে আমাদের নতুন সময়কে বলেন, ‘এ সিদ্ধান্তে সংখ্যালঘুদের শিক্ষা ব্যবস্থায় বড় ধরনের ধাক্কা। আমরা প্রতিবাদ জানাই। বিষয়টি নিয়ে আমরা সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসবো। তারা না মানলে আন্দোলন কর্মসূচী গ্রহণ করবো।’

[৫] মাদ্রাসা বন্ধের সিদ্ধান্ত গভীর রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র উল্লেখ করে ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন এনএসইউআই’র উত্তর-পূর্ব শাকার ভাইস প্রেসিডেন্ট ও দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রনেতা মহসিন খান আমাদের নতুন সময়কে বলেন, বিজেপি সরকারের মাদ্রাসা বন্ধের সিদ্ধান্ত একটি অযোক্তিক এবং অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত। এটি ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তিতে আঘাত। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

[৬] তিনি বলেন, দীর্ঘকাল ধরে আসামে মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা চলছে। এখানে ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি সাধারণ শিক্ষাও দেওয়া হয়। মাদ্রাসায় শুধু মুসলিমরাই পড়াশোনা করে না। অনেক হিন্দুও এখানে পড়ে। আসামের ইতিহাসে দীর্ঘদিনের মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ হাই মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেছেন। বিজেপির এ সিদ্ধান্তের কোন যুক্তি নাই।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত