প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিএসটিআই’র অভিযান অব্যাহত থাকলেও পেট্রোল পাম্পে জ্বালানি তেল সরবরাহে ওজনে কারচুপি থামছে না

ইসমাঈল ইমু: [২] বিএসটিআই কর্মকর্তারা বলছেন, প্রায় প্রতিদিনই রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানের পেট্রোল পাম্পে ঝটিকা অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ওজনে কম দেয়ার অপরাধে শাস্তি হচ্ছে। পাশাপাশি পেট্রোল পাম্প মালিকদের সতর্ক করা হচ্ছে। এরপরও ওজনে কম দেয়ার প্রবনতা থামানো যাচ্ছেনা। এক্ষেত্রে পেট্রোল পাম্প গুলোকে চিহ্নিত করে তালিকা করার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

[৩] বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর রমনা পেট্রোল পাম্প থেকে ২ লিটার অকটেন নেন মাসুদ নামের এক বাইকার। পূর্বাচলের ৩০০ ফিট ঘুরে আবার পল্টন এলাকায় আসলে তার বাইক বন্ধ হয়ে যায়। পরে দেখেন তার বাইকে জ্বালানি তলানীতে। সাধারনত বেশি সিসির মোটরসাইকেলে ৩০ থেকে ৩৫ কিলোমিটার জ্বালানি খরচ হয় লিটারে। এছাড়া কম সিসির বাইকে ৪০ থেকে ৪৫ কিলোমিটার চলে। মাসুদের বাইকে এক লিটারে ৪০ কিলোমিটার চললেও তিনি হতবাক হন।

[৪] এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা জানান, এর আগেও তিনিও একই ঘটনার শিকার হন। তবে রাজারবাগ পেট্রোল পাম্প, তেজগাঁওয়ে ট্রাস্ট ফিলিং স্টেশন, শাহবাগের একটি পেটোল পাম্প, কল্যাণপুরে খালেক ফিলিং স্টেশনসহ বেশকিছু পাম্পের প্রশংসা করেন তিনি। তিনি বলেন, রাজধানীর বেশকিছু পাম্প রয়েছে যাদের বিরুদ্ধে ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। পেট্রোল পাম্প মালিকদের অনীহার কারণে এ অবস্থা চলছে।

[৫] বেশিরভাগ ক্রেতারা জানান, তাড়াহুড়োর কারণে অনেকেই মিটারও দেখেননা। আবার কি পরিমান কম দিচ্ছে তাও জানতে না পারায় কেউ বিষয়টি লক্ষ করেন না। আর এ সুযোগটাই হয়তো কাজে লাগায় পাম্পের কর্মচারিরা।

[৬] এদিকে গত বৃহস্পতিবারও রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় একাধিক পেট্রোলপাম্পে এসব কারচুপি ধরা পড়ে। অভিযুক্ত দুটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা ও জরিমানা করেছে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)। নিউমার্কেট এলাকায় কিউ জে সামদানী ফিলিং স্টেশনে পরিমাপে প্রতি ১০ লিটার অকটেনে ৫১০ মিলিলিটার, ডিজেলে ৩৭০ মিলিলিটার এবং পেট্রোলে ৩৪০ মিলিলিটার জ্বালানি তেল কম দেওয়ার প্রমাণ পাওয়া যায়। এছাড়া একই এলাকায় মেসার্স পথের বন্ধু ফিলিং স্টেশন আন্ডারগ্রাউন্ড স্টোরেজ ট্যাংক মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় জরিমানা আদায় করা হয়।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত