প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভাস্কর্য নিয়ে ষড়যন্ত্রের জন্য জিয়াউর রহমান দায়ী, বললেন সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ

ডেস্ক রিপোর্ট : মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের জন্য জিয়াউর রহমানকে দায়ী করেছেন। যে মূলনীতির ওপর বাংলাদেশের জন্ম হয়ে ছিল, ধর্ম নিয়ে রাজনীতি বন্ধ ছিল। বঙ্গবন্ধু হত্যার পর জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় এসেই ধর্মভিত্তিক রাজনীতি শুরু করে। এরাই জাতীয় মূলনীতি তছনছ করে দেয়। এই ধারাবাহিকতায় ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে।

স্বানীতার পরাজিত শক্তিরা পরাজয়ের গ্লানি ভুলতে পারেনি। ওরা আজও ওৎ পেতে আছে। আজ বৃহস্পতিবার ভোলা হানাদারমুক্ত দিবসে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির ভার্চুয়ালি বক্তব্য এমন তথ্য তুলে ধরেন তোফায়েল আহমেদ।

এ সময় তিনি বলেন, করোনাকালীন কঠিন সময় মোকাবেলা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন স্বাভাবিকভাবে চলছিল, হঠাৎ করে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে দেশে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। আজ যারা ভাস্কর্যবিরোধী বক্তব্য দিচ্ছেন, তাদের উদ্দেশে পৃথিবীর বহু ইসলামিক রাষ্ট্রে ভাস্কর্য স্থাপনের তথ্য তুলে ধরেন আওয়ামী লীগের এই প্রবীণ নেতা। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কোনও বির্তক নয়।

যতোদিন বাংলাদেশ থাকবে, ততদিন বঙ্গবন্ধু হৃদয়ের মনিকোঠায় থাকবেন। তিনি সকল বিতর্কের ঊর্ধ্বের মানুষ। তার ভাস্কর্য স্থাপনে বিরোধিতা ও ষড়যন্ত্র না করার আহ্বান জানান তিনি। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিকের সভাপতিত্বে এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার দোস্ত মাহমুদ, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী কাজী শরিফ উদ্দিন ।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শংকর কুমার বিশ্বাস, প্রেসক্লাব সভাপতি এম. হাবিবুর রহমানসহ মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।
নতুন বাজার চত্বরে তিনতলাবিশিষ্ট দুটি পৃথক জেলা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ভবনসহ কমপ্লেক্স নির্মাণ করে গণপূর্ত বিভাগ। একইসঙ্গে ওই ভবনের পাশে ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে জেলা মসজিদ। বৃহস্পতিবার ওই মসজিদ নির্মাণ কাজেরও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়।

সূত্র-আরটিভি অনলাইন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত